Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

পেছনে পড়ে গেলো বার্সা

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

লা লিগায় নিজেদের সর্বশেষ চার ম্যাচে বার্সেলোনা জিতেছে দুই ম্যাচ। একটি করে ম্যাচ হেরেছে ও ড্র করেছে। এই সময়ে বার্সা গোল দিয়েছে ১০টি ও হজম করেছে ৯ টি। যার মধ্যে ভিয়ারিয়ালের কাছে বার্সা হেরেছে ৫-৩ গোলে।

বার্সেলোনা, গ্রানাদা—লা লিগার ২০২৩-২৪ মৌসুমে ক্লাব দুটি রয়েছে ভিন্ন দুই মেরুতে। বার্সেলোনা রয়েছে সেরা চারে। অন্যদিকে নিন্মগামীর শঙ্কায় গ্রানাদা।অথচ এই গ্রানাদার বিপক্ষেই হারতে হারতে বেঁচে গেল বার্সা। 

গত রাতে গ্রানাদার বিপক্ষে, স্তেদি অলিম্পিক লুইস কোম্পানিস স্টেডিয়ামে  প্রথমে এগিয়ে যায় বার্সা। ১৪ মিনিটে হোয়াও ফেলিক্সের দুর্দান্ত সহযোগীতায় গোল করেন ল্যামিন ইয়ামাল। এরপর ৪৩ থেকে ৬০—১৭ মিনিটে রিকার্ড সানচেজ ও ফাকুন্দো পেলিস্ট্রির গোলে এগিয়ে যায় গ্রানাদা।

এরপর ৬৩ মিনিটে রবার্ট লেভানডফস্কির গোলে ম্যাচে সমতায় ফেরে বার্সেলোনা। ২-২ সমতা বার্সেলোনা ধরে রাখতে পেরেছে ৩ মিনিট। ৬৬ মিনিটে গ্রানাদাকে এগিয়ে নেন ইগনাসি মিকুয়েল। পিছিয়ে পড়া বার্সাকে ৮০ মিনিটে সমতায় ফেরান ইয়ামাল। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ শেষ হয় ৩-৩ সমতায়। 

এই ম্যাচে অবশ্য দাপট দেখিয়ে খেলেছে বার্সেলোনা। ৬৬ শতাংশ বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের লক্ষ্য বরাবর বার্সার শট ছিল ৬টি। যার মধ্যে গোলে পরিণত করতে পেরেছে তিনটি। ম্যাচ ড্র হওয়ায় ২৪ ম্যাচে ৫১ পয়েন্টে তালিকার তিনে বার্সা। সমান ম্যাচ খেলে ৬১ ও ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার সেরা দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ও জিরোনা।

 ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে হতাশা নিয়ে বার্সা কোচ জাভি বলেন, ‘আমরা অনেক সুযোগ তৈরি করেছি। তবে কিছু ভুল ছিল। তাতে বোঝা গেল আমরা মাদ্রিদ ও জিরোনার পেছনে। এক পয়েন্ট যথেষ্ট নয়।’ 

এই ম্যাচ ড্র হওয়ায় বার্সেলোনা এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ হারিয়েছে বলে মনে করেন জাভি। বার্সা কোচ বলেন, ‘ভক্ত-সমর্থকদের মতো খেলোয়াড়েরাও ক্ষুব্ধ। আমরা একটা সুযোগ হারিয়েছি। আশানুরূপ খেলতে পারিনি। আরও পেছনে পড়ে গেলাম।’ 

জাভি আরও বলেন, ‘ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে আমরা পাঁচ গোল হজম করেছি। আজ তিনটা। যদি আপনি প্রতিযোগিতা করা ও ম্যাচ জিততে চান, তাহলে এগুলো বেশ কঠিন হয়ে যায়।’

রন/ক্রী/০০২