Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

জিদানের লক্ষ্য একটাই

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

জিনেদিন জিদানকে নিয়ে নতুন ছক কষেছিল পিএসজি (প্যারিস সেইন্ট জার্মেই) । আগামী মৌসুমে জিদানকে দলের ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব দিয়ে জিততে চেয়েছিল উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ । যদিও পিএসজি’র সেই আশা পূরণ হচ্ছে না । তিনি আপাতত পিএসজির দায়িত্ব নিচ্ছেন না । বরং ভবিষ্যতে ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হিসেবে নিজেকে প্রস্তুত রেখেছেন ।

ফ্রান্সকে প্রথম বিশ্বকাপ এনে দেয়া জিদান কোচ হিসেবেও দারুণ সফল । যদিও ফরাসী মহাতারকার কোচিং ক্যারিয়ার খুব বেশী লম্বা না । দুই মেয়াদে মোট সাড়ে চার মৌসুম রিয়াল মাদ্রিদের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি । একমাত্র কোচ হিসেবে জিতেছেন টানা তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স লীগ , যা অনেকের পুরো ক্যারিয়ারেও নেই । জিতেছেন সব মিলিয়ে ১১টি শিরোপা । পেয়েছেন ফিফা’র বর্ষসেরা কোচের সম্মান ।

তবে ২০২১ সালের জুনের পর থেকে কোচিং থেকে দূরে আছেন জিদান । সম্প্রতি ফ্রান্সের সেরা ক্লাব পিএসজি’র পক্ষ থেকে বিরাট অংকের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল । তিনি প্রস্তাব গ্রহণ করলে , জিদান হতে পারতেন বিশ্বের সবচেয়ে দামী কোচ । কিন্তু জিদান শেষ পর্যন্ত পিএসজির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন ।

আগামী ডিসেম্বরে অর্থাৎ কাতার বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পর ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দলের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন দিদিয়ের দেশাম্প , যিনি ছিলেন জিদানের বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক । ধারণা করা হচ্ছে , দেশাম্পের পর জিদানের কাঁধেই উঠতে পারে ফ্রান্স দলের ভার । যদিও এই বিষয়ে এখনও কোন পক্ষ থেকেই নিশ্চিত কিছু বলা হয় নি ।

তবে জিদান নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে জানিয়েছেন , ‘ কোচ হিসেবে এখনও কি আমার কিছু দেবার সামর্থ্য আছে ? হ্যাঁ , আমি মনে করি আমার অনেক কিছু দেয়ার আছে । আমি কোচ হিসেবে অনেক কাজ করতে চাই । কারণ আমি এখনও ফুটবল ভালবাসি , কোচিং ভালবাসি।’

‘টেলেফুট’ কে দেয়া সাক্ষাৎকারে রিয়েলে নিজের সাফল্য নিয়ে জিদান বলেন , ‘ কঠিন পরিশ্রমেই চূড়ান্ত সাফল্য আসে । হ্যাঁ , রিয়েলের সাফল্যে আমার কিছু বদান আছে । কিন্তু আমি একটা খুব ভাল স্কোয়াডও পেয়েছিলাম । ‘

৫০ বছরে পা দিতে চলা জিদান জানিয়েছেন , ‘ একা একা কোন সাফল্য সম্ভব না । কাজ করার ক্ষেত্রে আমি আমার চারপাশে সেইসব মানুষ চাইব , যাদের সাথে কাজ করতে আমি স্বস্তি বোধ করব । তাতে কাজ করা সহজ হয় । সাফল্য আসে । ‘

২০০৬ সালে বুট জোড়া তুলে রাখা জিদান ২০১২ সালে রিয়াল মাদ্রিদের যুব দলের কোচ হিসেবে কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। পরে কাজ করেছেন মূল দলের সহকারী কোচ হিসেবেও।

২০১৬ সালের জানুয়ারিতে দায়িত্ব নেন রিয়ালের প্রধান কোচ হিসেবে। প্রথম দফায় ২০১৮ সালের মে পর্যন্ত ছিলেন ক্লাবটিতে। পরে ২০১৯ সালের মার্চে দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব নিয়ে ছিলেন ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত।

আহাস/ক্রী/০০৪