Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

নেইমারদের নেই জয়ের অদম্য মানসিকতা

আহসান হাবীব সুমন/ক্রীড়ালোকঃ

ল্যাটিন আমেরিকা অঞ্চল থেকে ইতোমধ্যেই কাতার বিশ্বকাপের টিকেট নিশ্চিত করেছে ব্রাজিল । অপেক্ষায় আছে আর্জেন্টিনাও । যা আগামী ম্যাচ ডেতেই নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে । বুধবার (১৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে পাঁচটায় চির প্রতিপক্ষ ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা । ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আর্জেন্টিনার স্যান জুয়ানে ।

ল্যাটিন অঞ্চল থেকে ১০ দলের চারটি সরাসরি খেলবে কাতার বিশ্বকাপে । আর পয়েন্ট টেবিলের পাঁচ নাম্বার দল পাবে আন্তঃমহাদেশীয় প্লে-অফে খেলার সুযোগ । ইতোমধ্যেই ১২ ম্যাচ থেকে ৩৪ পয়েন্ট পাওয়া ব্রাজিল নিশ্চিত করেছে কাতারে খেলা । অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আর্জেন্টিনা পেয়েছে ১২ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট । ব্রাজিলের বিপক্ষে জয় পেলে আর পরবর্তী অবস্থানে থাকা ইকুয়েডর নিজ ম্যাচে হেরে গেলে , আর্জেন্টিনার জন্য বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে । তবে ব্রাজিলের বিপক্ষে না জিতলেও পরবর্তী পাঁচ ম্যাচ থেকে আর্জেন্টিনা প্রত্যাশিত জয় তুলে নিলেই নিশ্চিত হয়ে যাবে কাতার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ ।

ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার পরের স্থানে থাকা ইকুয়েডর ১৩ ম্যাচে পেয়েছে ২০ পয়েন্ট । চিলি, কলম্বিয়া আর উরুগুয়ে পেয়েছে ১৩ ম্যাচে সমান ১৬ পয়েন্ট । অর্থাৎ ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার পর বিশ্বকাপ বাছাইয়ে পরবর্তী তিনটি স্থানের জন্য চলছে জোর লড়াই ।

ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে আর্জেন্টিনা শিবিরের জন্য আছে সুখবর । চির-প্রতিপক্ষের বিপক্ষে শুরু থেকেই মাঠে নামছেন লিওনেল মেসি । গত দুই সপ্তাহে মেসি ভুগছিলেন হাঁটুর ইনজুরিতে । যে কারণে পিএসজির হয়ে দুইটি ম্যাচ খেলা হয় নি তার । ইনজুরির কারণে স্পেনের মাদ্রিদের হাসপাতালে চিকিৎসাও নিতে হয়েছে তার । তবে শনিবার উরুগুয়ের বিপক্ষে শেষ ১৫ মিনিটে মাঠে ছিলেন পিএসজি তারকা ।

মেসি আগামী বিশ্বকাপ শিরোপার দিকে ‘পাখির চোখ’ করেছেন । কোপার পর বিশ্বকাপ পেয়ে মেসির ক্যারিয়ারে অপূর্ণতা বলতে তেমন কিছু থাকবে না । ৩৪ বছরের মেসি জীবনের শেষ বিশ্বকাপে পূরণ করতে চান সেই অধরা স্বপ্ন । তাই সাম্প্রতিক সময়ে ক্লাবের চেয়ে জাতীয় দলে খেলাকেই বেশী প্রাধান্য দিচ্ছেন আর্জেন্টিনার ‘ক্ষুদে যাদুকর’ । যা নিয়ে তার ক্লাব পিএসজি বিরক্তি প্রকাশ করলেও শেষ পর্যন্ত দুই পক্ষ এসেছে সমঝোতায় ।

এদিকে অনুশীলনে ফিরেছেন লিয়েন্দ্রো পেরেদেস । ইনজুরির কারণে অক্টোবর থেকেই মাঠের বাইরে পিএসজিতে মেসির সতীর্থ । ব্রাজিলের বিপক্ষে তাকেও পাওয়ার আশা করছেন আলবেসেলেস্তে কোচ লিওনেল স্কোলানি ।

সর্বশেষ কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনা ১-০ গোলে জিতেছিল ব্রাজিলের বিপক্ষে । এটি ছিল ২৮ বছর পর আর্জেন্টিনার প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা । সেই জয়ের পর আর্জেন্টিনা আর ব্রাজিলের দেখা হচ্ছে প্রথমবারের মত । ব্রাজিলের জন্য ম্যাচটি তাই প্রতিশোধের বটে । অন্যদিকে আর্জেন্টিনার জন্য সম্মানরক্ষার সাথে বিশ্বকাপের আগেভাগে কাটার লড়াই ।

বর্তমানে সাফল্যের বিচারে ব্রাজিলের চেয়ে আর্জেন্টিনা সুস্পস্টভাবে এগিয়ে । দলটি অপরাজিত আছে ২৭ ম্যাচে । এছাড়া গোলরক্ষক নিয়ে আর্জেন্টিনার বহুদিনের সমস্যার সমাধান করে নির্ভরতা দিচ্ছেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ । এছাড়া যে কোন বড় ম্যাচে মেসির চেয়েও ভরসা হয়ে আছেন আনহেল ডি মারিয়া , যার একমাত্র গোলে ব্রাজিলকে হারিয়ে আর্জেন্টিনা জিতেছে সর্বশেষ কোপা । এছাড়া স্কোয়াডে আছেন টটেনহ্যামের সেন্টার-ব্যাক ক্রিস্টিয়ান রোমেরো , এথলেটিকো মাদ্রিদের মিডফিল্ডার রদ্রিগো ডি পল , জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড পাওলো দিবালা । দারুণ ভরসা করার মত স্কোয়াড নিয়ে কোচ স্কোলানি এগিয়ে চলেছেন অভীষ্ট লক্ষ্যের দিকে ।

এদিকে ব্রাজিল দল আগেভাগে বাছাই পর্ব পেরুলেও মাঠের খেলায় দর্শকদের মন ভরাতে পারছে না । ব্রাজিল দল এখনও নেইমার নির্ভর । কিন্তু নেইমার জুনিয়র একজন সত্যিকারের নেতা হয়ে উঠতে পারেন নি , কখনও পারবেন কিয়ান সেটা নিয়েও আছে সন্দেহ ! এছাড়া ব্রাজিলের অন্যান্য গ্রেটদের মত নেইমারের মধ্যে তেড়েফুঁড়ে জয়ের জন্য ঝাঁপাবার উদ্যোগ কম । সহজাত প্রতিভা আছে , কিন্তু ‘হার না মানার’ মানসিকতার অভাবে নেইমার পিছিয়ে থাকেন অনেকটাই ।

ব্রাজিলের কোচ হিসেবে তিতের উপরেও আস্থা হারাচ্ছে সবাই । বিশেষ করে একাদশ নিয়ে তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা বাড়াবাড়ি রকমের । যার মাশুল দিচ্ছে দল । আর্জেন্টিনার বিপক্ষেও সেন্টার ব্যাক পজিশনে আনকোরা গ্যাব্রিয়েল মাগালহায়েসের অভিষেক ঘটিয়ে ফেলতে পারেন তিতে ।

এছাড়াও ইতোমধ্যে বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ‘রিল্যাক্স’ হয়ে খেলতে পারেন ব্রাজিলের খেলোয়াড়রা । তাতে আর্জেন্টিনা পেতে পারে ম্যাচ জয়ের বাড়তি সুযোগ । আবার ম্যাচটাও যেহেতু আর্জেন্টিনার মাঠে , তাই ব্রাজিলের জয় নিয়ে আগেভাগে ‘বাজী’ ধরা যাচ্ছে না ।

আহাস/ক্রী/০০৫