Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ইটালি আর পর্তুগালকে একসাথে দেখা যাবে না বিশ্বকাপে

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

বর্তমান ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন ইটালি । অন্যদিকে ২০১৬ সালে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছিল পর্তুগাল । দুইটি দেশই বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম আকর্ষণীয় আর জনপ্রিয় দল । অথচ এই দেশের একটিকে দেখা যাবে না ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপে – এর চাইতে দুঃখজনক ঘটনা আর কি হতে পারে !

হ্যাঁ , কাতার বিশ্বকাপে এমনটাই ঘটতে চলেছে । কারণ দুই দলের কেউ ইউরোপিয়ান বাছাই পর্বে গ্রুপের বাঁধা পেরুতে পারে নি । তাদের ঠাই হয়েছে ‘প্লে-অফে’ । এখানেই শেষ নয় , প্লে-অফের ফাঁদে পড়া দুই দেশ ফিফা’র বর্তমান নিয়মে পড়ে গেছে একই গ্রুপে , যেখান থেকে একটিমাত্র দল যাবে কাতারে খেলতে ।

আগামী বছর কাতারে অনুষ্ঠিতব্য ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবলে ইউরোপ থেকে সুযোগ পাচ্ছে ১৩টি দেশ । ইতোমধ্যেই গ্রুপের বাঁধা ডিঙ্গিয়ে ১০টি দেশ পেয়েছে বিশ্বকাপে খেলার টিকেট । এখন ১০ গ্রুপের ১০ রানার্স আপের সাথে উয়েফা নেশন্স লিগের সেরা দুই গ্রুপ চ্যাম্পিয়নকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে প্লে-অফ ।

ফিফা’র নতুন নিয়মে ১২টি দলকে তিন গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে । প্রতিভাগে চারটি দল খেলবে এক লেগের সেমি ফাইনাল । এরপর দুই সেমিতে বিজয়ী দলের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল । সেই ফাইনালের বিজয়ী দলটাই পাবে কাতার বিশ্বকাপে খেলার ছাড়পত্র ।

শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) জুরিখে ফিফার সদর দপ্তরে হওয়া এই প্লে অফের ড্রতে বাছাই দল হিসেবে ছিল ছয়টি দল—পর্তুগাল, স্কটল্যান্ড, ইতালি, রাশিয়া, সুইডেন, ওয়েলস। অবাছাই দল হিসেবে ছিল তুরস্ক, পোল্যান্ড, উত্তর মেসেডোনিয়া, ইউক্রেন, অস্ট্রিয়া, চেক প্রজাতন্ত্র। বাছাই হওয়ার সুবিধা হিসেবে দলগুলো সব ঘরের মাঠে খেলার সুযোগ পাচ্ছে।

লটারি ভাগ্যে ‘এ’ পাথের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে স্কটল্যান্ড-ইউক্রেন ও ওয়েলস-অস্ট্রিয়া। ‘বি’ পাথের সেমিতে রাশিয়া-পোল্যান্ড ও সুইডেন-চেক প্রজান্ত্র। সবশেষ ‘সি’ পাথের সেমিতে ইতালি মুখোমুখি হবে নর্থ মেসিডোনিয়ার এবং তুরস্কের মুখোমুখি হবে পর্তুগাল। অর্থাৎ পাথ ‘সি’ সেমিতে জিতলেও ফাইনালে মুখোমুখি হবে ইটালি আর পর্তুগাল । আর তাতে একটি দল যাবে কাতার ।

চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালি ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপেও খেলতে পারে নি। ইউরোপিয়ান বাছাই পর্বই উৎরাতে পারেনি তারা। অন্যদিকে ইউরোর আগের আসরের এবং উয়েফা নেশন্স লিগের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো বাছাই পর্বে খেলেছে ‘এ’ গ্রুপে। তাদেরকে পেছনে ফেলে গ্রুপ সেরা হয়েছে সার্বিয়া। যার ফলে প্লে-অফে খেলতে বাধ্য হচ্ছে রোনালদোদের। শুধু তাই নয়, কাতার বিশ্বকাপই হতে পারে রোনালদোর শেষ বিশ্বকাপ। কিন্তু যদি খেলতেই না পারেন, তাহলে একটা আক্ষেপ নিয়েই বিদায় নিতে হবে তাকে।

আহাস/ক্রী/০০২