Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

রোনালদোকে নিয়ে ভাবলেই বিপদ !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

উইয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের নক আউট পর্বে বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রয়েছে দুইটি ম্যাচ । আসরের সর্বাধিক তেরোবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়েল মাদ্রিদের মাঠ স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে খেলতে যাবে ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি । অন্যদিকে ফ্রান্সের অলিম্পিক লিওর বিপক্ষে মাঠে নামবে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস । ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে লিওর অলিম্পিক পার্ক স্টেডিয়ামে । দুইটি ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত দুইটায় ।

টানা আটবারের ইটালিয়ান লীগ চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসের জন্য খুব বড় বাঁধা হওয়ার কথা না ফ্রান্সের লিও । কিন্তু খেলাটি যেহেতু নক আউট পর্বের , আর খেলতেও হচ্ছে প্রতিপক্ষের মাঠে । তার উপর ইউরোপের ক্লাব ফুটবলে যে কোন মুহূর্তে অঘটন ঘটাই যেন সাধারণ নিয়ম । সেই কারণেই জুভেন্টাসের জয় পাওয়া নিয়ে কোন গ্যারান্টি অবশ্যই দেয়া যায় না । তবে যে দলে আছেন একজন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো । সাথে পাওলো দিবালা , হুয়ান কুয়ার্দাদো , অ্যারণ রামসে , বানুচ্চি আর ব্লেইস মাতুইদির মত তারকা আছেন । এমন ম্যাচে লিওর বিপক্ষে জুভেন্টাসকে এগিয়ে না রেখেও উপায় নেই ।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে নিয়ে যদিও আলাদা ভাবনায় নেই লিও কোচ রুডি গার্সিয়া । তিনি জানিয়েছেন , ‘ রোনালদোকে নিয়ে আলাদাভাবে ভাবতে গেলে বরং বিপদ বাড়বে । সে বিশ্বের সেরা ফুটবলারদের একজন । কে কোন প্রতিপক্ষকে ধ্বংস করে দেয়ার ক্ষমতা রাখে রোনালদো । আমাদের বিপক্ষে সে যাতে কম ক্ষতি করতে পারে , আমরা সেই চেষ্টাই করব । ‘

লিও কোচ জানিয়েছেন , ‘ আমি বরং আমাদের বিপক্ষে রোনালদোর খেলা উপভোগ করব । তাকে নিয়ে বাড়তি চিন্তায় গিয়ে লাভ নেই । তাতে হিগুইন , দিবালারা সুযোগ পাবে । জুভেন্টাসে ভালমানের খেলোয়াড়ের অভাব নেই । ‘

গার্সিয়া সংবাদ-সম্মেলনে জানিয়েছেন , ‘ আমাদের বিপক্ষে অবশ্যই ফেভারিট জুভেন্টাস । তাদের আছে রোনালদো । কিন্তু আমাদের লড়তে হবে একা রোনালদোর বিপক্ষে নয় , পুরো জুভেন্টাসের বিপক্ষে । আমরা আমাদের সেরা খেলাটাই খেলার চেষ্টা করব । ‘

সেরা খেলার চেষ্টার কথা বললেও লিও কিন্তু নিজেদের সেরা একাদশ নিয়ে নামতে পারছে না জুভেন্টাসের বিপক্ষে । এই ম্যাচে অধিনায়ক মেম্পিস ডিপেসহ পাঁচ খেলোয়াড়কে পাচ্ছে না স্বাগতিকরা । নিঃসন্দেহে জুভেন্টাসের মত দলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে লিওর জন্য এটি বড় দুঃসংবাদ । তার উপর জুভেন্টাসের বিপক্ষে আগে কখনও জয়ের রেকর্ড নেই এই ফরাসী ক্লাবের । চারবারের দেখায় তিনটিতেই তুরিনের বুড়িদের কাছে হেরেছে লিও । আর ড্র করেছে একটি ম্যাচে । সুতরাং ইতিহাসটাও লিওর বিপক্ষে ।

অন্যদিকে ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় রোনালদো আছেন নিজের মতই , একেবারে রাজসিক ফর্মে । টানা গোল করে চলেছেন জুভেন্টাসের জার্সিতে । গত শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) স্পালের বিপক্ষে খেলেছেন নিজের ক্যারিয়ারের হাজারতম ম্যাচ । করেছেন গোল । যা কিনা চলতি লীগে টানা ১১ ম্যাচে গোল । জুভেন্টাসের ১২২ বছরের ইতিহাসে সিরি আ’তে টানা এত ম্যাচে গোল করার কীর্তি আর কেউ দেখাতে পারেননি! মোট ২১ গোল নিয়ে এবারের লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছেন পর্তুগিজ অধিনায়ক।

অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ইতিহাসেও সবচেয়ে বেশী ১২৮ গোল করার রেকর্ড রোনালদোর । আর নক আউট পর্ব থেকে তার গোল করার নেশা যেন বাড়ে । যেখানে গ্রুপ পর্বে রোনালদোর গোল ৬৩টি , সেখানে নক আউট স্টেজে রোনালদোর গোল ৬৫টি । ইতিহাসের একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে গ্রুপ পর্বের ছোট ম্যাচের চেয়ে বড় ম্যাচে রোনালদোর গোলের সংখ্যা বেশী ! এছাড়া এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ গ্রুপ পর্বে মাত্র দুইটি গোলের দেখা পেয়েছেন আধুনিক ফুটবলের সম্রাট । সেই খেদ যদিও সেরা ষোলর প্রথম ম্যাচ থেকেই মেটাতে চান সিআর-সেভেন , তাহলে লিওর ভাগ্যে নিশ্চিত বিপর্যয় অপেক্ষা করছে ।

তবে ফুটবল যেহেতু দলীয় খেলা , সেই হিসেবে লিওর কোচ গার্সিয়া ঠিকই বলেছেন । একা রোনালদোর দিকে বাড়তি নজর দিয়ে আসলে লাভ নেই । রোনালদোর মত ফুটবলাররা যত বাঁধাই আসুক , যা করার করে দেবেন একটু সুযোগ পাওয়ামাত্র চোখের পলকে । সেই কারণেই অন্তত রোনালদোকে নিয়ে আগে থেকেই বাড়তি আতংকে থাকতে চান না গার্সিয়া ।

অন্যদিককে জুভেন্টাসের কোচ মৌরিসিও সারি চাইছেন , নিজেদের খেলার আরও উন্নতি । কারণ তার দল সেরা ষোল নয় , ভাবছে তৃতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শিরোপা জয় নিয়ে ।

আগামী ১৭ মার্চ জুভেন্টাসের মাঠে ফিরতি লেগ খেলতে যাবে লিও ।

আহাস/ক্রী/০০৫