Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

যুব বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

ইতিহাস গড়ে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ । অধিনায়ক আকবর আলীর দৃঢ়তায় বাংলাদেশ আসরের ফাইনালে তিন উইকেটে হারিয়েছে চারবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে । সেই সাথে এই প্রথম কোন আইসিসি আসর জিতে গড়েছে নতুন ইতিহাস ।

রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) পচেফস্ট্রমে অনুষ্ঠিত ম্যাচের শুরুতে ব্যাট করে ৪৭.২ ওভারে ১৭৭ রানে অল আউট হয়ে যায় ভারত । জবাবে বাংলাদেশ ইনিংসের শেষের দিকে বৃষ্টি নামলে টার্গেট দাঁড়ায় ১৭০ রান । যা সাত উইকেট খুইয়ে পেরিয়ে যায় বাংলাদেশ ।

টার্গেট তাড়ায় ৫০ রানের দারুণ ওপেনিং জুটি গড়েন পারভেজ হোসেন ইমন আর তানজিদ হাসান তামিম । ২৫ বলে দুইটি চার আর একটি ছক্কায় ১৭ রান করে তামিমের বিদায়ে ভাঙ্গে এই জুটি ।

উড়ন্ত সূচনার পরও সময়ের ব্যবধানে উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। ১০২  রানে ৫ উইকেট হারিয়ে এক ঘরে হয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ভারতীয় লেগ স্পিনার রবি বিষ্ণুর বল খেলতেই পারছিলেন না বাংলাদেশি যুবারা। নিজের করা প্রথম ৪ ওভারে মাত্র ১১ রান দিয়ে বাংলাদেশের ৩ ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরান ১৯ বছর বয়সী ভারতীয় এ লেগ স্পিনার।

১৩তম ওভারে রবি বিষ্ণুর বলে আউট হয়ে ফেরেন মাহমুদুল হাসান জয়। ওই ওভারেই পায়ে ব্যথা পেয়ে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে ফেরেন ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন। তৃতীয় উইকেট পতনের পর ব্যাটিংয়ে নামেন অধিনায়ক আকবর আলী। ইমন আউট হওয়ার পর শূন্য রানের ব্যবধানে ফেরেন তাওহিদ হৃদয়।

দলীয় ৬৫ রানে ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে গিয়ে আউট হয়ে ফেরেন শাহাদাত হোসেন। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে আকবর আলীকে যোগ্য সঙ্গ দিতে পারেননি শামিম হোসেনও। তিনি ২০ রানের জুটি গড়ে আউট হন।এরপর আকবর আলীর সঙ্গে ১৭ রানের জুটি গড়তেই আউট হয়ে যান অভিষেক দাস।

২৩ ওভারে দলীয় ১০২ রানে ৬ উইকেট পতনের পর রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে ফেরা ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন ফের ব্যাটিংয়ে নামেন। সপ্তম উইকেটে ইমনকে সঙ্গে নিয়ে ৪২ রানের জুটি গড়েন আকবর আলী। তাদের এই জুটিতেই জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ।

শেষ দিকে জয়ের জন্য ১০৯ বলে প্রয়োজন ছিল মাত্র ৩৫ রান। খেলার এমন অবস্থায় সজোরে ব্যাট চালাতে গিয়ে এক্সট্রা কাভারে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ইমন। তার আগে ৭৯ বলে ৭টি চারের সাহায্যে করেন ৪৭ রান।

১৪৩ রানে ৭ উইকেট পতনের পর পরপর দুই ওভার মেইডেন দেন আকবর আলী ও রাকিবুল হাসান। শেষ পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন ৩৭ রানের জুটি গড়ে দুজন জেতান দলকে । রাকিবুল মুল্যবান ৯ রান করেছেন ২৫ বলে । 

আর অধিনায়ক আকবর আলী হার না মানা ৪৩ রান করেছেন ৭৭ বলে । তার ব্যাট থেকে আসে চারটি চার আর একটি ছক্কা । 

ভারতের হয়ে রবি বিষ্ণুয়ী নেন চার উইকেট । সুশান্ত মিশ্রা নিয়েছেন দুইটি ।

এদিকে ম্যাচের শুরুতে টস জিতেছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক আকবর আলী । তিনি ভারতকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রন জানান ।

ভারতের হয়ে ওপেনার জশভি জশওয়াল একাই করেছেন ৮৮ রান । মুলত তার কারণেই লড়াই করার মত পুঁজি পেয়েছে ভারত । জশওয়াল ১২১ বল খেলে আটটি চার আর একটি ছক্কা মেরেছেন ।

৯ রানে প্রথম উইকেটের পতনের পর জশওয়াল আর তিলাক ভার্মা মিলে যোগ করেন ৯৪ রাম । এটাই ভারতের সেরা জুটি । তিলয়াক ভার্মা ৩৮ রান করেছেন তিনটি চারের সাহায্যে ৬৫ বল খেলে ।

এছাড়া উইকেট কিপার ধ্রুব জুরেল করেছেন ২২ রান ।

ভারতীয় দলের আর কেউ দুই অংকের রানের দেখা পান নি ।

বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক দাস নিয়েছেন তিনটি উইকেট । দুইটি করে উইকেট পেয়েছেন তানজিম হাসান সাকিব আর শরিফুল ইসলাম । একটি উইকেট দখলে নিয়েছেন রকিবুল হাসান ।

ফাইনালের সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন আকবর আলী । আর টুর্নামেন্টের সেরা হয়েছেন জশওয়াল । 

আহাস/ক্রী/০১৩