Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

বোল্টকে হারিয়ে দিয়েছেন ভারতীয় শ্রীনিবাস !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

জ্যামাইকান স্প্রিন্টার উসাইন বোল্টকে তুলনা করা হয় বিদ্যুতের সাথে । ট্র্যাকে বিদ্যুৎ-গতির দৌড়ে তিনি হামেশাই পেছনে ফেলেছেন প্রতিদ্বন্দ্বীদের । গড়েছেন একের পর এক বিশ্বরেকর্ড । যে কারণে অ্যাথলেটিক্স জগতে স্বল্প-পাল্লার দৌড়ে সর্বকালের সেরার স্বীকৃতিও পেয়েছেন বোল্ট । অথচ সেই বোল্টের চেয়েও নাকি দ্রুতগতিতে দৌড়াতে পারেন ভারতের ২৮ বছরের যুবক শ্রীনিবাস গৌড়া ।

কাগজে-কলমে পৃথিবীর ইতিহাসে এখন পযর্ন্ত সবচেয়ে দ্রুততম মানব উসাইন বোল্ট। ১০০ মিটারের ট্র্যাকে মাত্র ৯.৫৫ সেকেন্ডে শেষ করে রেকর্ড গড়েছিলেন জ্যামাইকান স্প্রিন্টার। সেই রেকর্ড অক্ষুন্ন আছে এখনও। কিন্তু ভারতের কর্ণাটকের কাম্বালা জকি শ্রীনিবাস হাত দিয়ে বসেছেন সেই রেকর্ডে ।

২৮ বছর বয়সী শ্রীনিবাস দৌড়েছেন ‘কাম্বালা’ বলে একরকমের মোষের দৌড় প্রতিযোগিতায় । যেটা হয়ে থাকে কর্ণাটক রাজ্যের দক্ষিণা কান্নাডা ও উদোপি জেলার মধ্যকার কৃষি জমিতে। যেখানে বাধা দুই ষাঁড়ের পেছনে দৌড়াতে হয় প্রতিযোগিদের।

আর সেই দৌড়েই শ্রীনিবাস ১০০ মিটার পার হয়েছেন মাত্র ৯.৫৫ সেকেন্ডে। যা কিনা বোল্টের করা রেকর্ডের সমান। ভারতীয় গণমাধ্যম দাবি করছে, বোল্টের চেয়েও দ্রুত গতির মানব শ্রীনিবাস।

মাত্র ১৩.৬২ সেকেন্ডে ১৪২.৫ মিটার দৌড়ে রেকর্ড গড়ে প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়নও হয়েছেন তিনি। কাম্বালার ইতিহাসে শ্রীনিবাসের আগে কোনো প্রতিযোগী এত দ্রুত দৌড়াতে পারেনি।

বিষয়টি সর্বপ্রথম জাতীয়স্তরে নজরে আনেন তিরুঅনন্তপুরমের কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর। গৌড়াকে অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন করার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হোক। ভারতের অ্যাথলেটিক্স অ্যাসোসিয়েশনের কাছে এমনই দরবার করেন কংগ্রেস সাংসদ। ইন্টারনেটে নয়া কাম্বালা সেনসেশনকে নিয়ে তুমুল হইচইয়ের পর গোটা ঘটনায় দৃষ্টিপাত করেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরন রিজিজু। স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার সেরা কোচেদের তত্ত্বাবধানে গৌড়াকে প্রশিক্ষন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন রিজিজু।

সংবাদসংস্থা এএনআই’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রিজিজু বলেন, ‘সাইয়ে প্রথম সারির কোচেদের তত্ত্বাবধানে প্রশিক্ষণের জন্য আমি শ্রীনিবাস গৌড়াকে আমন্ত্রণ জানাব। জনসাধারণের মধ্যে অলিম্পিকের মান নিয়ে ধারণা কম আছে। দেশের সব প্রতিভা পরীক্ষিত হবে, আমি এটা নিশ্চিত করতে চাই।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিও থেকে রিজিজুর প্রতিভা অন্বেষণের ঘটনা এই প্রথম নয়। গতবছর এমনই এক ভাইরাল ভিডিও দেখে মধ্যপ্রদেশের রামেশ্বর সিংকে সাইয়ে প্রশিক্ষণের বন্দোবস্ত করে দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী। খালি পায়ে মাত্র ১১ সেকেন্ডে ১০০ মিটার অতিক্রম করেছিলেন রামেশ্বর।

আহাস/ক্রী/০১১