Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

বার্সাতেই যুদ্ধ শুরু করে দিলেন মেসি !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

সময়টা একেবারেই ভাল যাচ্ছে না বার্সেলোনার । চলতি বছরের শুরু থেকে দলের পারফর্মেন্সে যেন ভাঁটার টান । যা নিয়ে এখন দলের মধ্যেই শুরু হয়েছে দ্বন্দ্ব । আর তাতে জড়িয়ে পড়েছেন খোদ অধিনায়ক লিওনেল মেসি ।

নতুন ২০২০ সালে বার্সেলোনা সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে খেলেছে সাতটি ম্যাচ । যার মধ্যে জয় চারটি , ড্র একটি আর হার দুইটি ম্যাচে । এর মধ্যে সবচেয়ে বড় পরাজয় জুটেছিল স্প্যানিশ সুপার কোপার সেমি ফাইনালে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে , সৌদি আরবে । আর ২৫ জানুয়ারি লা লীগার ম্যাচে বার্সেলোনা হেরেছে ভ্যালেন্সিয়ার কাছে ।

অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের কাছে হারের পরেই চাকুরিচ্যুত হয়েছেন কোচ আর্নেস্তো ভেলভার্দে । তার জায়গায় নিয়োগ পেয়েছেন কুইকে স্যাতিয়েন । নতুন কোচের অধীনে এখনও বার্সেলোনা নিজেদের সেরা ছন্দে ফিরতে পারে নি । টিকি-টাকা ফুটবল ভক্ত স্যাতিয়েনের কৌশলে গ্রানাডা আর ইবিজার মত দলের বিপক্ষে কোনোমতে জিতেছে বার্সা । আর হেরেছে ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে ।বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলেও গোল করার ক্ষেত্রে স্যাতিয়েনের বার্সেলোনা প্রথম তিন ম্যাচেই দেখিয়েছে সীমাহীন ব্যর্থতা ।

যদিও কোপা ডেল রে’তে লেগানেসের বিপক্ষে ৫-০ গোলের জয় পাওয়ার পর লা লীগায় সর্বশেষ ম্যাচে লেভান্তের বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতেছে স্যাতিয়েনের দল । শেষ ম্যাচে লেভান্তের বিপক্ষেও গোলের অসংখ্য সুযোগ নষ্ট করেছে বার্সেলোনা ।

চলতি বছর বার্সেলোনার ক্রমশ নিম্নমুখী পারফর্মেন্স নিয়ে চলছে সমালোচনার ঝড় । দলের অন্যসব খেলোয়াড় তো আছেই , সমালোচনার তীর ধেয়ে আসছে অধিনায়ক মেসির দিকেও । বলা হচ্ছে , অধিনায়ক হিসেবে মেসি দলকে জাগাতে পারছেন না ! ইনজুরির কারণে মাস তিনেকের জন্য ছিটকে গেছেন বার্সায় মেসির অন্যতম সহযোগী লুইস সুয়ারেজ । এই উরুগুইয়ানের অনুপস্থিতি এখন প্রতি মুহূর্তে টের পাওতা যাচ্ছে মাঠে । যা পূরণ করতে পারছেন না বার্সেলোনার ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড় ।

মাঠের মধ্যে যখন মেসির উপর এমন চাপ , ঠিক তখন আর্জেন্টিনার তারকার সাথে নতুন দ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে এরিক আবিদালের । এক সময়ে বার্সায় মেসির সতীর্থ আবিদাল এখন দলের ক্রীড়া পরিচালক । স্বাভাবিকভাবেই বার্সেলোনার ভাল-মন্দ বিষয়ে কথা বলা আবিদালের দায়িত্ব । আর সেটা বলতে গিয়েই মেসির সাথে সম্পর্কের অবনতি ঘটার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে ফ্রান্স জাতীয় দলের সাবেক তারকার ।

নিজের পেশাগত জায়গা থেকে বার্সেলোনার খেলার সমালোচনা করেছেন আবিদাল । বলেছেন , আর্নেস্তো ভেলভার্দের অধীনে কিছু খেলোয়াড় সঠিক দায়িত্ব পালন করে নি !

আবিদাল কারো নাম নেন নি । কিন্তু আবিদালের এই মন্তব্য সম্ভবত ব্যক্তিগতভাবে নিয়েছেন ছয়বারের ব্যালন ডি অর’জয়ী মেসি । সেই কারণেই তিনি পাল্টা জবাব চেয়েছেন আবিদালের কাছে ।

মেসি জানিয়েছেন , ‘ আবিদালের ঢালাও অভিযোগ করা উচিৎ না । কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ থাকলে সরাসরি তাদের নাম বলা উচিৎ । ‘

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘স্পোর্টস’ দেয়া সাক্ষাৎকারে আবিদাল জানিয়েছিলেন , ‘ আমার কাছে ভেলভার্দের সময়ে বার্সেলোনার ড্রেসিং রুমের পরিবেশ স্বাভাবিক মনে হয় নি । মনে হয়েছে খেলোয়াড়দের সাথে তার দূরত্ব আছে । তার অধীনে অনেকেই খুশী ছিল না । সেই কারণেই হয়ত মাঠে তাদের পারফর্মেন্স ভাল ছিল না ! ‘

এই কথার জবাবে মেসি জানিয়েছেন , ‘ হ্যাঁ , মাঠের খেলায় দল খারাপ করলে সেটার দায় বেশীরভাগ ক্ষেত্রে খেলোয়াড়দের উপরেই বর্তায় । আমরা সেটা অস্বীকার করি না । তবে আমরা আমাদের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন । কিন্তু কথা হচ্ছে , দলের খারাপ ফলাফলের দায় একা শুধু খেলোয়াড়দের না । এই দায়িত্ব সমানভাবে টিম ম্যানেজমেন্টকেও নিতে হবে । ‘

মেসি জানান , ‘ আবিদাল কারো নাম বলেন নি । এটা অন্যায় । তিনি সবাইকে কলংকিত করেছেন ! ‘

এমন সব ঘটনায় বার্সেলোনা শিবিরে দ্বন্দ্বের বিষয়টা চলে এসেছে সামনে । মনে করা হচ্ছে , এখানে কেউ কাউকে এখন বিশ্বাস করছে না । সভাপতি বার্তামিউর আস্থা নেই পরিচালক আবিদালের উপর । বিশেষ করে আবিদাল জানুয়ারিতে দলের কোচ হিসেবে জাভি জার্নান্দেজকে ভেড়াতে ব্যর্থ হয়েছেন । সুয়াজের অভাব মেটাতে দলে নিতে পারেন নি কোন নতুন স্ট্রাইকার । এই নিয়ে আবিদালের কার্যকারিতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন বার্সেলোনার সভাপতি ।

এদিকে খেলোয়াড়দের সাথেও বোর্ডের সম্পর্ক ক্রমশ অবনতির দিকে । কারণ মেসিসহ অনেকেই কোচ হিসেবে ভেলভার্দের রয়ে যাওয়ার পক্ষে ছিলেন । কিন্তু সেই ভেলভার্দেকে সরিয়ে এখন দোষ দেয়া হচ্ছে খেলোয়াড়দের !

সব মিলিয়ে বার্সেলোনার অভ্যন্তরীণ কোন্দল এখন চরমে বলে জানাচ্ছে স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক ‘মার্কা’ । তারা আরও জানিয়েছে – ভেলভার্দে চলে যাওয়ায় খুশী সার্জিও বুস্কেটস , ইভান রাকিটিচ আর আর্তুরো ভিদালের মত কিছু তারকা । অর্থাৎ পক্ষান্তরে জানিয়ে দেয়া হয়েছে , এসব খেলোয়াড়দের সাথে মেসিদের দূরত্ব । যা নিয়ে বার্সার ড্রেসিং রুমে এখন গুমোট পরিবেশ ।

বিশেষজ্ঞরা আশংকা করছেন , এখনই নিজেদের মধ্যকার কোন্দল না মেটালে সামনে বড় বিপর্যয়ে পড়তে হবে বার্সেলোনাকে ।

আহাস/ক্রী/০০৪