Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

মুশফিকদের বিপদে ফেলে দিলেন মাশরাফি !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

পাকিস্তান সফর নিয়ে নিজের মতামত জানিয়ে মুশফিকুর রহিমদের কি খানিকটা বিপদেই ফেলে দিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ? বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক জানিয়েছেন , তিনি সুযোগ থাকলে পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি হতেন ! অথচ এই বিষয়ে একেবারে বিপরীতে অবস্থান বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমদের ।

চলতি জানুয়ারি মাসেই দুইটি টেস্ট আর তিনটি টি-২০ ম্যাচের সিরিজ খেলতে পাকিস্তান যাওয়ার কথা বাংলাদেশের । যদিও নিরাপত্তার কারণে এই সফর নিয়ে এখনও দোটানায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) । প্রথম দিকে শুধু তিনটি টি-২০ খেলতে পাকিস্তান যেতে রাজি ছিল বাংলাদেশ । তবে তাতে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) রাজি না । তারা বাংলাদেশের পুরো সফরটাই চায় । কিন্তু বিসিবি’র অনড় অবস্থানে এখন পাকিস্তান প্রস্তাব দিয়েছে টেস্ট সিরিজের ।

এই নিয়ে আগামী রবিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন । ধারণা করা হচ্ছে , বিসিবি রাজি হবে শুধু টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য জাতীয় দলকে পাকিস্তান পাঠাতে । কারণ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যে দুটি টেস্ট রয়েছে সেটি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। আর তাই বিসিবিকেও এ নিয়ে ভাবনা করতে হচ্ছে। টি২০ সিরিজটি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ। তা যে কোন সময় খেলা যাবে। কিন্তু টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ না খেললে দুই দলেরই অসুবিধা হবে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বিসিবি’র মূল চিন্তা , টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ খেলতে না গেলে আইসিসি’র তরফ থেকে কোন সমস্যায় পড়তে হবে কিনা । সেসব যাচাই করেই রবিবার নিজেদের সিদ্ধান্ত জানাবে বিসিবি ।

এদিকে পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি না বাংলাদেশের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মুশফিকুরসহ অন্য আরও কেউ কেউ । এমনকি কোচিং স্টাফদের মধ্যেও এই সিরিজ নিয়ে আছে অনীহা । এমন পরিস্থিতি বিসিবি কিভাবে সামাল দেবে , সেটাও দেখার বিষয় ।

কিন্তু এসবের মধ্যে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক পাকিস্তান সফর নিয়ে করেছেন ইতিবাচক মন্তব্য । শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে রংপুরের কাছে ম্যাচ হারার পর সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফিকে প্রশ্ন করা হয় পাকিস্তান সফর নিয়ে । যদিও ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে মাশরাফি। মূলত জাতীয় দলের ৫০ ওভারের ম্যাচ না থাকায় তিনি মাঠের বাইরে। পাকিস্তান সফর হলেও তাই মাশরাফির যাওয়ার কোনও সুযোগ নেই। কেননা তিনি টেস্ট ও টি-২০ খেলেন না।

তবু এই বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে ম্যাশ জানান , ‘ সত্যিই যদি জানতে চান, তাহলে আমি বলব, আমি পাকিস্তানে যেতাম। অবশ্যই পরিবারের সঙ্গে কথা বলতাম। জানি না পরিবার কী বলতো। কারণ এ নিয়ে প্রথম আলোচনা হচ্ছে। পরিবার আপত্তি না করলে আমি অবশ্যই যেতাম।’

অবশ্য একই সঙ্গে যারা যেতে ইচ্ছুক নন, তাদের প্রতি পূর্ণ সম্মান দেখাচ্ছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক, ‘আমি যেতাম বলে এই নয় যে, যারা যেতে চাচ্ছে না, তারা ভুল। অবশ্যই খেলার থেকে জীবন সবার আগে। ব্যক্তিগত জীবন সবার আগে। যে যেটা সিদ্ধান্ত দেবে, তারা প্রত্যেকেই প্রত্যেকের জায়গায় ঠিক আছে।’

মাশরাফির এমন বয়ানে কি খানিকটা বেকায়দায় পড়ে গেলেন মুশফিকসহ অন্যরা , যারা পাকিস্তান সফরে যেতে নারাজ ?

আহাস/ক্রী/০১১