Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

টস জিতলেই জিতে যাবে বাংলাদেশ !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

অবশেষে শুরু হচ্ছে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-২০ সিরিজ । অনেক অনিশ্চয়তার পর পাকিস্তানে পৌঁছে বাংলাদেশ মাঠে নামছে শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) । বাংলাদেশ সময় বিকেল তিনটায় শুরু হবে দুই দলের মধ্যে প্রথম টি-২০ ম্যাচ । লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি ।

এই ম্যাচের আগে র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক এগিয়ে থাকায় পাকিস্তান অবশ্যই ফেভারিট । পাকিস্তান যেখানে আইসিসি টি-২০ র‍্যাংকিংয়ের এক নাম্বারে আছে , বাংলাদেশ সেখানে নয়ে অবস্থান করছে । তার উপর খেলা হচ্ছে পাকিস্তানের মাঠে ।

কিন্তু কিছুদিন আগেই নিজেদের মাটিতে আইসিসি র‍্যাংকিংয়ের আটে থাকা শ্রীলঙ্কার কাছে টি-২০ সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান । শ্রীলঙ্কা পারলে বাংলাদেশ কেন পারবে না ? এমন প্রশ্ন আসছে ।

তার উপর সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তানের ফর্ম একেবারেই সুবিধার না । গত পাঁচটি টি-২০ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া আর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টানা হেরেছে পাকিস্তান । আজ তাই বাংলাদেশের সম্ভাবনা দেখছেন অনেকেই ।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ টানা তিন টি-২০ ম্যাচ শ্রীলঙ্কা জিতেছে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামেই । বাংলাদেশের সাথেও তারা খেলছে একই মাঠে । ফলে সাম্প্রতিক অতীত বিবেচনায় পাকিস্তানের বিপক্ষে দারুণ কিছু করার সুযোগ থাকছে বাংলাদেশের সামনে ।

যতদূর জানা গেছে তিনটি ম্যাচই হবে স্পোর্টিং উইকেটে। ব্যাটসম্যানরা রান পাবেন বোলারদেরও হতাশ করবে না গাদ্দাফির ২২ গজ। রাত থেকে সরিয়ে ম্যাচ দিনে আনায় ডিউ ফ্যাক্টরের টেনশনও শেষ।

গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে এখন পর্যন্ত টি-২০ ম্যাচ হয়েছে ৯টি। যেখানে আগে ব্যাট করা দল জয় পেয়েছে ৬টিতে। তাই ম্যাচ জয়ে টস গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক হতে পারে। এই মাঠে সর্বোচ্চ রান হয় ১৯৭, যা করেছে পাকিস্তান। সবশেষ পাঁচ ম্যাচে গড় রান ১৭০।

এই স্টেডিয়ামে ৯ ম্যাচে স্পিনারদের শিকার ৩২ উইকেট। যেখানে পেসাররা ঝুলিতে পুড়েছে ৬৩টি।

এটাই বলে দিচ্ছে ফল নির্ধারনে ফ্যাক্টর এখানে গতির বোলাররা। ফলে মুস্তাফিজ-রুবেলদের নিতে হবে গুরুদায়িত্ব। পাশাপাশি ব্যাট হাতে দায়িত্ব পালন করতে হবে টপঅর্ডারকে। এসবের যোগফলেই ধরা দিতে পারে সাফল্য।

এদিকে যতদূর জানা গেছে , ওপেনিংয়ে যথারীতি নামবেন তামিম ইকবাল খান ও লিটন দাস। বিপিএলে তেমন দ্রুতগতিতে রান তুলতে না পারলেও অভিজ্ঞ তামিমই থাকছেন ওপেনিংয়ে। সাথে সঙ্গী বিপিএলে দারুণ পারফর্ম করা লিটন দাস।

ওয়ানডাউনে দেখা যেতে আফিফ হোসেন ধ্রুব কিংবা সৌম্য সরকারকে। বিপিএলে ওপেনিংয়ে দারুণ পারফর্ম করা আফিফের একাদশে খেলাটা নিশ্চিত। সেক্ষেত্রে চারে দেখা যেতে পারে নাজমুল হোসেন শান্ত কিংবা নাইম শেখকে। পাঁচে খেলবেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

ছয়ে দেখা যেতে পারে ভারতের বিপক্ষে তিন নম্বরে নামা অলরাউন্ডার সৌম সরকারকে। সাতে দেখা যেতে পারে ঢাকা প্লাটুনের হয়ে দারুণ পারফর্ম করা মেহেদী হাসানকে কিংবা মোহাম্মদ মিঠুনও খেলতে পারেন। বাকি পজিশন থাকছে বোলারদের জন্য। বল হাতে দায়িত্বটা সামলাবেন মোস্তাফিজ, রুবেল, বিপ্লবরা। সেক্ষেত্রে হাসান মাহমুদের যে অভিষেকে আরো দেরি হচ্ছে সেটা বলাই যায়।

বাংলাদেশ সম্ভাব্য টি-২০ একাদশঃ
তামিম ইকবাল, লিটন দাস, আফিফ হোসেন, নাজমুল হোসেন শান্ত/নাইম শেখ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ(অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান/মোহাম্মদ মিঠুন , রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

আহাস/ক্রী/০০৩