Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

এভাবেও হারতে হয় !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

সেমি ফাইনালে বড় ব্যবধানেই আফ্রিকান শক্তি বুরুন্ডির কাছে হেরেছে বাংলাদেশ । বিদায় নিয়েছে নিজ দেশের মাটিতে চলমান বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের সেমি ফাইনাল থেকে । কিন্তু খেলার ফলাফলে আসলে বোঝার উপায় নেই পুরো ম্যাচের প্রকৃত পরিস্থিতি । শুধু বলা যায় , নিজেদের চায়ে অনেক শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিপক্ষে দারুণ লড়াই করেও বড় হারের তিক্ত স্বাদ নিতে হয়েছে জেমি ডের দলকে ।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের দ্বিতীয় সেমি ফাইনালে বাংলাদেশকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে বুরুন্ডি । আগামী শনিবার (২৫ জানুয়ারি) আসরের ফাইনালে মুখোমুখি হবে বুরুন্ডি আর বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিন ।

বুরুন্ডির বিপক্ষের এই ম্যাচে বাংলাদেশ দলে দুটি পরিবর্তন আনেন কোচ জেমি ডে । আগের ম্যাচে অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করা রক্ষণভাগের খেলোয়াড় তপু বর্মনের জায়গায় নেমেছিলেন রায়হান হাসান। লাল কার্ড দেখায় আজকের ম্যাচে ছিলেন না তপু। পাশাপাশি ফেরেন নিয়মিত অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া। আগের ম্যাচে খেলা মাহবুবুর রহমান সুফিলকে বেঞ্চে রাখেন কোচ । যদিও তাকে নামতে হয় কিছু সময় পরেই ।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ৩৬ ধাপ এগিয়ে থাকা বুরুন্ডি ছিল শুরু থেকেই ফেভারিট । তার উপর দুভাগ্য বাংলাদেশের , আগের ম্যাচে দুই গোল করা মতিন মিয়া চার মিনিটেই পড়েন ইনজুরিতে । ফলে তাকে উঠিয়ে সুফলকে নামাতে বাধ্য হয়েছেন কোচ ।

৮ মিনিটে দুর্ভাগ্যের শিকার বাংলাদেশ গোল পায় নি । সুফিলের পাস থেকে মোহাম্মদ ইব্রাহিমের দারুণ শট ফিরে আসে পোস্টে লেগে ।

২২ মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও শট নিতে সময় নেন সুফিল। রক্ষণভাগের খেলোয়াড় এসে কর্নারের বিনিময়ে সেই যাত্রায় রক্ষা করেন বুরুন্ডিকে ।

৪৩ মিনিটে ব্লানচার্ড গাবোজিজার পাস থেকে গোল করেন জসপিন শিমিরিমানা।

প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে আবারও গোল করেন শিমিরিমানা । এবারে সেই বানচার্ডের ক্রসে হেড করে বল জালে জড়ান তিনি ।

৪৮ মিনিটে বুরুন্ডির গোলরক্ষকে একা পেয়েও গোল করতে পারেন নি সাদউদ্দিন । তার শট ফিরে আসে গোলরক্ষকের শরীরে লেগে ।

৬২ মিনিটে সুফিলের আরও একটি নিশ্চিত গোলের সুযোগ নষ্ট করেন বুরুন্ডির কিপার ।

৬৫ মিনিটে রিয়াদুল হাসান রাফির হেড পোস্টে লেগে ফিরে আসে । ফলে আরও একবার নিশ্চিত গোল বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ ।

৭৫ মিনিটে জামালের ফ্রি-কিক দারুণ দক্ষতায় ফেরান
আফ্রিকান গোলরক্ষক।

তিন মিনিট পর উল্টো গোল করে বুরুন্ডি । জসপিনা তার হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন। এ সময় ডানদিক দিয়ে তার নেওয়া কোণাকুনি শট রানাকে পরাস্ত করে জালে আশ্রয় নেয়।

এই নিয়ে এবারের আসরে দ্বিতীয় হ্যাট্রিক করলেন জসপিনা । আসরে তার গোলের সংখ্যা সর্বোচ্চ সাতটি ।

শেষ দিকে সাদের হেড ক্রসবারে লেগে গোল অধরাই থেকে যায় বাংলাদেশের। অন্যদিকে প্রথমবার বাংলাদেশে খেলতে এসেই ফাইনালে নাম লেখালো বুরুন্ডি ।

আহাস/ক্রী/০১১