Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

স্বস্তি কিছুটা পেতেই পারে বাংলাদেশ !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

কোলকাতায় চলমান ঐতিহাসিক দিবারাত্রির টেস্টে বাংলাদেশের ভরাডুবি অব্যাহত আছে দ্বিতীয় ইনিংসেও । তবে দারুণ বিপর্যয়ের মধ্যেও আপাতত ম্যাচ তৃতীয় দিনে নিতে পারাটাকেও এখন অসহায় বাংলাদেশ স্বস্তি হিসেবে মনে করতে পারে !

শনিবার দ্বিতীয় দিনের শেষে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৫২ রান । প্রথম ইনিংসে ১০৬ রানে অল আউট হওয়া বাংলাদেশের জন্য এটিকে সাফল্য হিসেবেও ধরতে পারেন কেউ কেউ ।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৯ উইকেটে ৩৪৭ রান করা ভারত এগিয়ে আছে এখনও ৮৯ রানে । অর্থাৎ বাংলাদেশের সামনে ইনিংস পরাজয়ের শংকা এখনও রয়ে গেছে ভালোভাবেই ।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ ১৩ রানেই হারায় চার উইকেট । এমন অবস্থায় ৬৯ রানের জুটি গড়ে পরিস্থিতি কিছুটা সামাল দেন মুশফিকুর রহিম আর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ।

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে কোন হাফ সেঞ্চুরিও ছিল না । কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে সেটা করেছেন মুশফিক । সেই সাথে গোলাপি বলে প্রথম টেস্ট হাফ সেঞ্চুরিয়ান হিসেবে ইতিহাসে নাম লিখিয়েছেন মুশফিক ।

মুশফিক অপরাজিত আছেন ৫৯ রান । এখন পর্যন্ত ৭০ বলে ১০টি চার মেরেছেন মুশি ।

আউট হন নি মাহমুদুল্লাহও । যদিও তিনি প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে । দলীয় ৮১ রানে ১৮.৩ ওভারে উমেশ যাদবের বলে সিঙ্গেল রান নেয়ার সময় মাহমুদউল্লাহর ডান পায়ের পেশিতে টান লাগে। চোট নিয়েই সাজঘরে ফেরেন রিয়াদ। তার আগে সাত চারে ৩৯ রান করেন তিনি।

মেহেদি হাসান মিরাজ ২২ বলে ১৫ রান করে আউট হয়েছেন । তাইজুল ইসলাম ফিরেছেন ১১ রানে ।

দ্বিতীয় ইনিংসে চার উইকেট নিয়েছেন ইশান্ত শর্মা আর দুইটি উইকেট নিয়েছেন উমেশ যাদব ।

এর আগে ভারতের হয়ে সেঞ্চুরি করেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি । ২৭ তম টেস্ট সেঞ্চুরি করার পথে বিরাট আউট হয়েছেন ১৩৬ রানে । তার ১৯৪ বলের ইনিংসে ছিল ১৮টি চার ।

বিরাটের এটি অধিনায়ক হিসেবে ২০তম সেঞ্চুরি ।এতে তিনি ছাড়িয়ে গেলেন রিকি পন্টিংকে। অধিনায়ক হিসেবে কোহলির চেয়ে বেশি সেঞ্চুরি আছে কেবল গ্রায়েম স্মিথের ২৫টি ।

আজিংকা রাহানে করেছেন ৫১ রান ।

আল আমিন ৮৫ রানে নেন ৩ উইকেট। ইবাদত ৩ উইকেট নেন ৯১ রানে।

আহাস/ক্রী/০০৪