Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ম্যাচ বাঁচাতে টি-২০ ক্রিকেটের নিয়মই পাল্টে ফেলছে ভারত !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

এই সময়ে ক্রিকেটের তিন সংস্করণের মধ্যে ‘টি-২০’ দারুণ জনপ্রিয় , কোন সন্দেহ নেই । অল্প সময়ে বেশী উত্তেজনার এই ক্রিকেট এখন মানুষকে বেশী আকর্ষণ করছে ওয়ানডে বা টেস্টের চেয়ে । আর এই টি-২০ ক্রিকেটকে কে জনপ্রিয় করতে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) অবদান অস্বীকার করার কোন উপায় নেই । গ্ল্যামার আর অর্থের ঝলকানিতে আইপিএল এখন বিশ্ব টি-২০ টুর্নামেন্টের রোল মডেল ।

বিশ্বব্যাপী ভারতের জনপ্রিয় ঘরোয়া ক্রিকেট আসরটিতে আগামী মৌসুমে যোগ হতে চলেছে এক নতুন নিয়ম । যা নিয়ে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক । আইপিএল কর্তৃপক্ষ ভাবছে ‘পাওয়ার প্লেয়ার’ নিয়ম চালু করতে ।

কিন্তু কেমন হবে এই ‘পাওয়ার প্লেয়ার’ পদ্ধতি ?

জানা গেছে , দলের প্রয়োজনে খেলার মাঝে একাদশের বাইরে থেকে কোন খেলোয়াড় নামাবার নিয়ম চালু করতে যাচ্ছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ । সেটার নামই দেয়া হচ্ছে ‘ পাওয়ার প্লেয়ার’ ।

ফুটবলে খেলোয়াড় বদলের নিয়ম আছে , যা ক্রিকেটে নেই । টেস্ট ক্রিকেটে অবশ্য দ্বাদশ খেলোয়াড়ের নিয়ম আছে । তবে সেটা শুধুমাত্র ইনজুরির কারণে কেউ খেলতে না পারলেই ।

কিন্তু ‘পাওয়ার প্লেয়ার’ নিয়মে বলা হচ্ছে , একাদশের বাইরেও চারজন ক্রিকেটার রিজার্ভ রাখা হবে । অর্থাৎ একটি ম্যাচে খেলোয়াড় তালিকা হবে ১৫ জনের । সেই ক্ষেত্রে ম্যাচের সময় যে কোন খেলোয়াড় উঠিয়ে নেয়ার সুযোগ থাকবে । সেটা ব্যাটিং কিংবা বোলিং , দুই ক্ষেত্রেই । তবে চারজনের মধ্যে ম্যাচে ব্যবহার করা যাবে একজন বদলী খেলোয়াড় ।

কোন ম্যাচে যে বোলার মার খাচ্ছে , তাকে উঠিয়ে নিয়ে অন্য কাউকে রিজার্ভ তালিকা থেকে নামিয়ে বোলিং করানো যাবে নতুন নিয়মে । আবার দলের প্রয়োজনে পরিবর্তন করা যাবে ব্যাটিংয়েও ।

বিসিসিআইয়ের ওই কর্তা বলেন, ‘আমরা এমন একটি দৃশ্যপট তৈরি করতে চাচ্ছি, যাতে দলগুলো একাদশের নাম জানাবে না। তারা ১৫ জনের নাম দেবে এবং একজন খেলোয়াড় উইকেট পড়লে কিংবা ওভারের শেষে যে কোনো সময় বিকল্প হিসেবে মাঠে নামতে পারবে। আমরা আইপিএলে এটা চালু করব। তার আগে আসন্ন মুশতাক আলী ট্রফিতে চেষ্টা করব।’

তো কেমন হবে ব্যাপারটা? বিসিসিআইয়ের ওই কমকর্তা জানালেন, আসলে ম্যাচ বদলে দেবার ধারণা থেকেই এটা ভাবা হয়েছে। এতে করে ম্যাচের পরিস্থিতি বদলে যাবে এবং যা ভাবা যায়নি, তা-ই ঘটবে। তাতে করে সমর্থকরা আরও বেশি উপভোগ করতে পারবে।

তার ভাষায়, ‘ধরুন, শেষ ৬ বলে ২০ রান দরকার। আর আপনার ডাগ আউটে বসে আছেন আন্দ্রে রাসেলের মতো খেলোয়াড়। হয়তো শতভাগ ফিট নয় সে কারণে একাদশে জায়গা পায়নি। কিন্তু যখন এমন পরিস্থিতে সে মাঠে নেমে যাবে এবং বড় শট খেলে আপনাকে ম্যাচ জিতিয়ে দেবে, কেমন হবে?’

বিসিসিআইয়ের ই কর্তা উল্টো উদাহরণও টেনে দেখালেন, ‘আবার ধরুন। শেষ ওভারে আপনার ছয় রান ডিফেন্ড করতে হবে। ডাগআউটে বসে আছে জাসপ্রিত বুমরাহর মতো বোলার। অধিনায়ক তখন কি করবে? বুমরাহকে ১৯তম ওভারের পর মাঠে নামাবে আর সে কাজটা করে দেবে। এই ধারণাটা কিন্তু খেলাটাই বদলে দেবে।’

নতুন এই নিয়মটি আলোর মুখ দেখবে কিনা সেটা সময়েই বলে দেবে । তবে আইপিএল-২০০৫ এ চালু হয়েছিল ‘সুপার সাব’ নিয়ম । সেই নিয়মে একজন নির্দিষ্ট খেলোয়াড়ের বদলে নতুন কাউকে নামানো যেত । যদিও বিতর্কের মুখে সেই নিয়ম বেশীদিন টেকে নি ।

আহাস/ক্রী/০০২