Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ভুল একাদশের মাশুল দিচ্ছে বাংলাদেশ !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

প্রায় হাতছাড়া হয়ে গেছে ভারতের বিপক্ষে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচ । ইতোমধ্যেই ইন্দোরে চলমান দুই দেশের মধ্যকার দুই ম্যাচের সিরিজের প্রথম টেস্টের নিয়ন্ত্রণ চলে গেছে ভারতের কাছে , প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় দিনের শেষে স্বাগতিকরা লিড নিয়েছে ৩৪৩ রানে , হাতে আছে আরও চার উইকেট । ম্যাচের যা অবস্থা , তাতে দুই দিনের মধ্যেই ইনিংস হারের শংকায় কাঁপছে টাইগাররা ।

শুক্রবার হল্কার স্টেডিয়ামে চলমান ম্যাচের দ্বিতীয় দিনের শেষে ভারতের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৪৯৩ রান । আর গতকাল প্রথম দিন বাংলাদেশ অল আউট হয় ১৫০ রানে ।

বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবে মুমিনুল হক প্রথম দিনেই ভুল করেছিলেন ঘাসের আবরণ থাকা পিচে টস জেতার পর ব্যাটিং নিয়ে । সেই ভুলের সাথে যোগ হয়েছে ভুল একাদশ নির্বাচন । ইন্দোরের পিচ সম্পূর্ণভাবে পেস সহায়ক । অথচ এখানে বাংলাদেশের একাদশে নেই একজন বাড়তি পেসার । সেইটা যে কত বড় ভুল , তা দেখিয়েছেন আবু জায়েদ রাহী । তিনিই শিকার করেছেন চার উইকেট । আরেক পেসার এবাদত হোসেন পেয়েছেন একটি । অর্থাৎ ভারতের ছয় উইকেটের মধ্যে পাঁচটি পেয়েছেন বাংলাদেশের পেসাররা । একটি শুধু পেয়েছেন স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ ।

বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের সময়েও রাজত্ব করেছেন পেসাররা । ভারতের তিন পেসার ইশান্ত শর্মা , উমেশ যাদব আর মোহাম্মদ শামি মিলে ভাগাভাগি করেছেন আট উইকেট । দুইটি পেয়েছিলেন অশ্বিন । অর্থাৎ প্রথম দুই দিনে ইন্দোর কথা বলেছে পেসারদের হয়ে । কিন্তু পিচ দেখেও নিজেদের একাদশ বাছাইয়ে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে টাইগার টিমের নির্বাচকরা । দলে আল আমিনের মত পেসার থাকলেও খেলাবার কথা ভাবা হয় নি তাকে , অথচ আল আমিন চারদিনের ম্যাচের আসর জাতীয় লিগে প্রথম ২ রাউন্ডে ১২.০০ গড়ে ৮ উইকেট পেয়েছেন । কিন্তু মোস্তাফিজের সাথে বসিয়ে রাখা হয়েছে তাকে বেঞ্চে ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন মায়াংক আগারওয়াল । তিনি আউট হয়েছেন ২৪৩ রানে । তার ৩৩০ বলের ইনিংসে ছিল ২৮টি চার আর ৮টি ছক্কা ।

পুজারার সাথে তিনি গড়েন ৯১ রানের জুটি । চেতেশ্বর পুজারা ৭২ বলে নয়টি চারে ৫৪ রান করে আউট হয়েছেন ।

বিরাট কোহলি কোন রান না করেই ফিরে যান । তবে আজিংকা রাহানেকে নিয়ে এরপরেই ১৯০ রানের জুটি গড়েন মায়াংক । আজিংকা অল্পের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেছেন ৮৬ রানে আউট হয়ে । ১৭২ বল খেলে তিনি মেরেছেন নয়টি চার ।

উইকেট কিপার ঋদ্ধিমান সাহা ১২ রান করেছেন ।

দিনের শেষে রবীন্দ্র জাদেজা ৬০ আর আর উমেশ যাদব ২৫ রানে অপরাজিত আছেন । এর মধ্যে টি-২০ স্টাইলে উমেশ ১০ বল খেলেই মেরেছেন একটি চার আর তিনটি ছক্কা ।

আহাস/ক্রী/০০৯