Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ওয়াটলিংয়ের ইতিহাস গড়া ডাবল সেঞ্চুরি

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চতুর্থ দিনের শেষে সুবিধাজনক অবস্থানে চলে গেছে নিউজিল্যান্ড । প্রথম তিনিদিনের ম্যাড়ম্যাড়ে ক্রিকেট যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে চতুর্থ দিনে এসে । সেই সাথে সম্ভাবনা জেগেছে ম্যাচে প্রায় নিশ্চিত কোন ফলাফল আসার ।

মাউন্ট মঙ্গানুইয়ের বে রোজ ওভালে চলমান টেস্টের প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড করেছিল ৩৫৩ রান । জবাবে ৯ উইকেটে ৬১৫ রানের পাহাড় গড়ে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা দেয় নিউজিল্যান্ড । আর রবিবার শেষ বেলায় ৫৫ রান তুলতেই তিন উইকেট হারিয়েছে অতিথি ইংল্যান্ড ।

পঞ্চম দিনে ২০৭ রান পিছিয়ে থাকা ইংল্যান্ড নামবে ইনিংস পরাজয় এড়িয়ে ম্যাচ ড্রয়ের লক্ষ্যে , যেহেতু তাদের সামনে জয়ের আপাত কোন সুযোগ নেই । অন্যদিকে ইংল্যান্ডের সাত উইকেট নিয়ে কিউইদের লক্ষ্য হবে ম্যাচ জয় ।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন জেজে ওয়াটলিং । ৪৭৩ বলে তিনি করেছেন ২০৫ রান । তার ব্যাট থেকে আসে দুই ডজন চার আর একটি ছক্কা । তিনি ক্রিজে ছিলেন মোট ১১ ঘণ্টা!

এই ইনিংস খেলার পথে কিছু রেকর্ড গড়েছেন ওয়াটলিং। প্রথম কোনো নিউজিল্যান্ডের স্বীকৃত উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে তুলে নিয়েছেন ডাবল সেঞ্চুরি। যা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কোনো উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানেরও প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। এছাড়া সবমিলিয়ে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করা অষ্টম ব্যাটসম্যান তিনি।

এছাড়া সপ্তম উইকেটে মিচেল স্যান্টনারকে নিয়ে ২৬১ রান যোগ করেন ওয়াটলিং । যা কি না নিউজিল্যান্ডের টেস্ট ইতিহাসে সপ্তম উইকেটে সর্বোচ রানের জুটি। প্রায় ৮৩ ওভার ও পাঁচ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ব্যাট করে এই ম্যারাথন জুটি গড়েন ওয়াটলিং ও স্যান্টনার।

রেকর্ড জুটি গড়ার পথে টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন স্যান্টনার। আউট হওয়ার আগে ১১ চার ও ৫ ছক্কার মারে ২৬৯ বলে ১২৬ রান করেন তিনি।

ইংল্যান্ডের হয়ে তিন উইকেট নেয়া স্যাম ক্যুরান ছিলেন সবচেয়ে সফল । দুইটি উইকেট পেয়েছেন জ্যাক লিচ আর বেন স্টোকস ।

দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ড ব্যাট করতে নামে ২৬২ রানে পিছিয়ে থেকে । দুই ওপেনার ররি বার্নস আর ডমিনিক শিবলি এনে দেন ৪৮ রানের ওপেনিং জুটি । কিন্তু তারপরেই ছন্দপতন । ৩১ রানে বার্নস , ১২ রানে শিবলির সাথে কোন রান না করা জ্যাক লিচ ফেরেন প্যাভিলিয়নে ।

৭ রানের মধ্যে তিন উইকেট হারিয়ে দিনের শেষে ব্যাক ফুটে চলে যায় ইংল্যান্ড । স্যাণ্টনার একাই নেন তিনটি উইকেট । দিন শেষে স্যান্টনারের বোলিং ফিগার ৮.৪-৫-৬-৩! ইনিংসের ২২তম ওভারে সিবলিকে আউট করে কিউই স্পিনারদের ঘরের মাঠে ১১ ইনিংস পর প্রথমবার উইকেট শিকার করেন স্যান্টনার। এরপর বার্নস ও জ্যাক লিচকে ফেরান তিনি।

শেষ দিনে ম্যাচ বাঁচানোর লড়াইয়ে জো ডেনলির সঙ্গে ব্যাট করতে নামবেন জো রুট।

আহাস/ক্রী/০০৮