Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

আমি ম্যাচ ফিক্সিং করেছি !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

সাকিব আল হাসান এখন বিশ্ব ক্রিকেটে সবচেয়ে আলোচিত । যদিও এবার আর খেলার জন্য নয় , বরং নেতিবাচক শিরোনামে সকলের আলোচনায় উঠে এসেছেন সাকিব । যা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য এক ভয়ংকর সংবাদ হয়ে এসেছে ।

সম্প্রতি ‘আইসিসি’ সাকিবকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে । ক্রিকেট জুয়াড়িদের কাছ থেকে ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেয়েও গোপন করায় তাকে এই সাজা দিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা । তবে একই সাথে নিজের ভুল স্বীকার করায় এক বছরের সাজার স্থগিতাদেশ দিয়েছে আইসিসি । সেই হিসেবে আগামী বছরের ২৯ অক্টোবর আবার ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন সাকিব ।

ম্যাচ ফিক্সিং ইস্যুতে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জড়িয়ে পড়া এবারই প্রথম না । কয়েক বছর আগে সাবেক টাইগার অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল ম্যাচ ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ভোগ করেছেন পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞার সাজা । যা তার ক্রিকেট ক্যারিয়ারকেই শেষ করে দিয়েছে প্রায় । এখন ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজেকে হারিয়ে খুঁজে ফেরা আশরাফুল কখনও জাতীয় দলে ফিরবেন , এমন আশা করেন না কেউ ।

তবে সাকিবের সাথে আশরাফুলের পার্থক্য আছে । সাকিব কোন ফিক্সিংয়ে জড়ান নি , সেই কারণে কারণে আশরাফুলের মত বড় সাজা তাকে পেতে হয় নি ।

এই নিয়ে খোদ আশরাফুল জানিয়েছেন , ‘ সাকিবের অবস্থা আমি কিছুটা বুঝতে পারছি । সে খুব ভয়ংকর খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে । আমি মনে করি এখন এ বিষয়ে সাকিবকে জড়িয়ে খুব বেশি খবর প্রকাশিত না হওয়াই ভালো। কারণ আমি জানি এসব খবর কতোটা প্রভাব ফেলে।’

সাকিবের ঘটনার সঙ্গে যে তার নিষিদ্ধ হওয়ার কোনো মিল নেই। তাও স্বীকার করেছেন আশরাফুল। তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের ঘটনা কিন্তু আলাদা। সে জুয়ারিদের প্রস্তাব দেয়ার কথা কর্তৃপক্ষকে জানায়নি। আর আমি ম্যাচ ফিক্সিংয়ের সঙ্গে পুরোপুরি জড়িত ছিলাম। তবে এটা আমাদের সিস্টেমের জন্যই একটা বড় ধাক্কা। আমরা ক্রিকেট খেলতে ভালোবাসি।’

নিষিদ্ধ থাকার সময় কি করতেন , এমন প্রশ্নের জবাবে আশরাফুল জানিয়েছেন , ‘ ‘আমি প্রথম ছয় মাস ঘুমিয়েই কাটিয়ে দিয়েছিলাম। সারা রাত টিভি দেখতাম, পরদিন দুপুরে ঘুম থেকে উঠতাম। এরপর আমি হজ্ব করে এলাম। যা আমাকে বাড়তি সাহস জোগায়। আমি সবসময় ভাবতাম, আদৌ ফিরতে পারব কি না ক্রিকেটে। কারণ তখন আমার বয়স ত্রিশ।’

সাকিব আবার ফিরে আসবে শক্তভাবে , এমন বিশ্বাসে আশরাফুল জানান , ‘ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাকে যেভাবে সহায়তা করার আশ্বাস দিয়েছে, তাতে স্বস্তি পাচ্ছি । আমি যেসব সমস্যায় পড়েছি, সাকিব ওগুলোতে পড়বে না। আমি বিসিবির কোনো মাঠে খেলতে পারিনি। আমাকে লন্ডন গিয়ে খেলতে হয়েছিল। সাকিবের এমন কিছুই করতে হবে না। সে মিরপুরেই অনুশীলন করতে পারবে।’

আশরাফুল বলেছেন , ‘ আমার আর সাকিবের ব্যাপারটি ভিন্ন। তবে তার এক বছর ক্রিকেট থেকে দূরে থাকাটা আমি মানতে পারছি না। সাকিব বিশ্বের এক নম্বর ক্রিকেটার। আমাদের সেরা তারকা। সে বিদেশের অনেক লিগে খেলে থাকে। আমি মনে করি ব্যাপারটিকে তিনি খুব বেশি গুরুত্বের সাথে নেননি। আমরা কখনই ভাবতে পারিনি যে সাকিব এই ভুল করবেন। যায় হোক এখন থেকেই আমাদের সকলেই এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।’

আহাস/ক্রী/০০১