Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ধর্মঘট ইস্যুতে বিসিবি সভাপতির রোষানলে মিরাজ !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

অবসান হয়েছে ক্রিকেটারদের ধর্মঘট কর্মসূচীর । টানা তিনদিনের ধর্মঘট ক্রিকেটাররা তুলে নিয়েছেন বুধবার রাতে । বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাথে আলোচনার পর নিজেদের ধর্মঘট তুলে নেয় টাইগার ক্রিকেটাররা । আজ শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) থেকেই ভারত সফরের অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দেয়ার কথা জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ।

গত সোমবার হঠাৎ করেই ১১ দফা দাবীতে ধর্মঘট ডেকে বসেছিল ক্রিকেটাররা । যার প্রেক্ষিতে তারা সব ধরণের ক্রিকেট কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা দেয় । বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ নানা দাবীতে ক্রিকেটাররা বুঝিয়ে দেয় বিসিবি’র প্রতি তাদের ক্ষোভ । যদিও বুধবার রাতে বিসিবি’র সাথে সমঝোতার পর শেষ হয়েছে ধর্মঘট । আর বিসিবিও ঘোষণা দেয় , ক্রিকেটারদের দাবী মেনে নেয়ার ।

আপাতত মনে হচ্ছে দুই পক্ষের মধ্যেই সৃষ্ট ঝামেলা শেষ হয়েছে । কিন্তু আসলেই কি তাই ? বিসিবি কি ক্রিকেটারদের আন্দোলনকে সহজভাবে নিয়েছে ? মনে হয় না । কারণ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন শুরু থেকেই ক্রিকেটারদের প্রতি নিজের অসন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন প্রকাশ্যে ।

বিসিবির কাছে কোন দাবী না জানিয়ে সরাসরি আন্দোলনে যাওয়াতেই মুলত পাপনের ক্ষোভ । এরপর ক্রিকেটের অচলাবস্থার সময় ক্রিকেটারদের ফোন করেও তিনি পান নি । যা বিসিবি সভাপতির আত্মসম্মানে লেগেছে ! তাতে মনে হচ্ছে , বুধবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সংকট কাটিয়ে ওঠার পর  সংবাদ সম্মেলনে যতই হাসিমুখে কথা বলুন, ক্রিকেটারদের নিয়ে ভেতরের চাপা ক্ষোভ হয়তো রয়েই গেছে।

বিসিবি সভাপতি খেলোয়াড়দের ফোন না ধরার বিষয়টি যে ভালভাবে নেন নি , সেটা বোঝা গেছে বুধবারের সমঝোতা বৈঠকে । সাকিব আল হাসান কিংবা মুশফিকুর রহিমদের মত সিনিয়রদের কিছু বলতে পারেন নি । কিন্তু ক্ষোভ ঝেড়েছেন অপেক্ষাকৃত জুনিয়র মেহেদি হাসান মিরাজের উপর ।

সভাতে মিরাজকে ধমক দিয়ে পাপন বলেন , ‘ মিরাজ, আমি তোমার জন্য কী করিনি, আর তুমি আমার ফোন ধর না? আমি তোমার ফোন নাম্বার ডিলেট করে দেব। তুমি দল থেকে বাদ পড়ে গিয়েছিলে। আমি তোমাকে দলে ফিরিয়েছি। আর তুমি…। ‘


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্রিকেটারও জানান, মিটিংয়ের শুরুতেই মিরাজকে দেয়া বোর্ড সভাপতির ওই ধমকের পর তাদের মনেও ভয় ঢুকে যায়।

ওই ক্রিকেটার বলেন, ‘মিরাজের ওই ঘটনার পর আমরা ভয় পেয়ে যাই। মিটিংটা যেভাবে শুরু হয়েছে, আমরা বেশি কথা বলার সাহসই পাচ্ছিলাম না। ‘

আরেকজন ক্রিকেটার বলেন , ‘ আপাতত আমাদের সব দাবী মেনে নেয়ার কথা বলা হয়েছে । কিন্তু আসলেই কি হবে সেটা আসলে বুঝতে পারছি না ! ‘

অনেকেই মনে করছেন , বিসিবি তাদের ওপর এখন আরও কড়া হবে। এখন ‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’ ভোগ করতে হবে তাদের।

যদিও সভার শেষে সংবাদ সম্মেলনেও বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন , ‘ ক্রিকেটারদের উপর রাগ হয়েছিল কাউকে কিছু না জানিয়ে এমন কর্মসূচী দেওয়ায় । তবে এখন সেটা নেই । ‘

বিসিবি সভাপতির রাগ আসলেই পড়ে গেছে কিনা সেটা বোঝা বুঝতে অপেক্ষা করতে হবে আগামী দিনগুলোর জন্য ।

আহাস/ক্রী/০০৫