Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

মেসির পক্ষে ভোট জালিয়াতি নিয়ে ফিফা’র বয়ান !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

সবাইকে অবাক করে দিয়ে কিছুদিন আগে ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন লিওনেল মেসি । যদিও আর্জেন্টিনা আর বার্সেলোনার অধিনায়কের পুরস্কার পাওয়া নিয়ে উঠছে অনেক প্রশ্ন । এমনকি অভিযোগ উঠেছে ফিফার বিপক্ষে মেসিকে ভোট চুরি করে জেতাবার । তবে যথারীতি সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘ফিফা’ ।

ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার ঘোষণার পর থেকেই চলছে সমালোচনা । সুদানের কোচ কোচ দ্রাভকো লুগারিসিচের দাবি , তিনি সেরার প্রশ্নে প্রথম ভোট দিয়েছেন মিশরীয় মোহাম্মদ সালাহকে ! কিন্তু তার ভোট দেখানো হয়েছে মেসির পক্ষে ।

মিশরের অধিনায়ক আহমেদ এল মোহামাদি জানিয়েছেন, তিনিও প্রথম পছন্দ হিসেবে ভোট দিয়েছেন সতীর্থ সালাহকে। কিন্তু তার ভোট গণনা করা হয় নি ! একই কথা বলেছেন মিশরের ভারপ্রাপ্ত কোচ শাউকি ঘারিব

ভোট দেন নি নিকারাগুয়ার অধিনায়ক হুয়ান বেরেরা । কিন্তু ভোট তালিকায় চলে এসেছে তার নাম । আর সেটাও গেছে মেসির পক্ষে ।

যা নিয়ে ইতোমধ্যেই প্রতিবাদ আর মিডিয়ায় প্রমাণসহ হাজির হয়েছে অভিযোগকারীরা । বিপুল অভিযোগ ওঠায় শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে ‘ফিফা’ সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে ।

ফিফা’র তরফ থেকে জানানো হয়েছে , ‘ আমাদের (ফিফা) বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ উঠেছে , যা খুব দুঃখজনক । আর অবশ্যই এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন । ‘

ফিফা জানায় , ‘ আমাদের যে কোন পুরস্কারের ক্ষেত্রে ভোট সিস্টেম পরিচালিত হয় নিরপেক্ষভাবে । এবার সেই ভোট গণনার কাজ করেছে সুইজারল্যান্ডের প্রাইস ওয়াটার হাউজ (পিডাব্লিউসি) । তারা কাজ করেছে সম্পূর্ণ স্বাধীন আর নিরপেক্ষভাবে । ‘

ফিফা জানায় , অনিয়মের কারণে মিশরের ভোট বাতিল হয়েছে । তাদের বক্তব্য , ‘মিশরের কোচ-অধিনায়কের ভোটিং ফর্মে যে সইগুলো ছিল তা ছিল ক্যাপিটাল লেটারে এবং সেকারণে সেগুলো বৈধতা পায়নি।’

ফিফা জানিয়েছে , ‘ ভোট দেয়ার ক্ষেত্রে কিছু সুনির্দিষ্ট নিয়ম আছে । আর ভোটারদের সেটা জানা আছে । কিন্তু তারপরেও তারা ভুল করলে কিছু করার নেই । ‘

যদিও ফিফা নিকারাগুয়ার অধিনায়কের না দেয়া ভোট গণনার অভিযোগের কোন ব্যাক্ষা দেয় নি । ফলে এই নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে ।

আহাস/ক্রী/০০৫