Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

লজ্জার হারের পর ভারতীয় স্কোয়াডে বড় পরিবর্তন

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে চলমান সিরিজের সিরিজের প্রথম টেস্টে নিদারুণ লজ্জায় ডুবেছে ভারত । এডেলেইড টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের সংগ্রহ ছিল মাত্র ৩৬ রান । যা টেস্ট ক্রিকেট ইতিহসে ভারতীয়দের সর্বনিম্ন রানের স্কোর । এমনকি ইতিহাসে এই প্রথম কোন টেস্ট ইনিংস ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের কেউ দুই অংকের রানের দেখা পান নি ।

প্রথম টেস্টের লজ্জার পর ভারতীয়দের জন্য আছে আরও দুঃসংবাদ । আগে থেকেই পিতৃত্বকালীন ছুটি নেয়ায় দেশে ফিরছেন নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি । এছাড়া প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট হাতে চোট পাওয়ায় আর খেলা হচ্ছে না মোহাম্মদ শামির । তাই বড় পরিবর্তন আসছে ভারতীয় দলে। অনেকের কপাল পুড়তে যাচ্ছে, আবার খুলছে কারো।

কোহলি কিংবা মোহাম্মদ শামি না থাকুক, মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে বড়সড় পরিবর্তন আনার কথাই ভাবছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। বিশেষ করে অ্যাডিলেড টেস্টে যে কয়েকজন ক্রিকেটারের মধ্যে কোনো লড়াকু মানসিকতাই দেখা যায়নি, পুরোপুরি নতজানু অবস্থা- তাদেরকে দল থেকে বাদ দিয়ে অন্য কাউকে নিয়ে আশার চিন্তা-ভাবনা চলছে।

এই চিন্তা-ভাবনার ফলে অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজের বাকি তিন টেস্টেই আর হয়তো মাঠে নামা হচ্ছে না ওপেনার পৃথ্বি শ এবং উইকেটরক্ষক হৃদ্ধিমান সাহার। এছাড়া বিরাট কোহলি এবং মোহাম্মদ শামির পরিবর্তে আরও দুইজনকে নিতে হবে দলে।

অর্থ্যাৎ, অ্যাডিলেডে ভারতের যে দলটি খেলতে নেমেছিল, মেলবোর্নে সেই দলে আমূল পরিবর্তন আনা হচ্ছে। ওপেনার পৃথ্বি শ’র পরিবর্তে দলে নেয়া হচ্ছে আরেক ওপেনার শুভমান গিলকে। মায়াঙ্ক আগরওয়ালের সঙ্গে ইনিংস ওপেন করতে নামবেন তিনি।

বিরাট কোহলির পরিবর্তে দলে নেয়া হবে আরেক অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুলকে। প্রথম টেস্টে বসিয়ে রাখা হয়েছিল তাকে। এছাড়া উইকেটের পেছনে গ্লাভস হাতে হৃদ্ধিমান সাহার ভবিষ্যৎ বলতে গেলে শেষ। ব্যাট হাতে তার মধ্যে কোনো আত্মবিশ্বাসই খুঁজে পাননি ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। তার জায়গাটা দখল করবেন আইপিএলের ফাইনালে অসাধারণ ব্যাটিং দিয়ে দিল্লিকে তুলে আনা রিশাভ পান্ত।

পেসার মোহাম্মদ শামি কব্জির ইনজুরিতে পড়ে ছিটকে গেলেন পুরো সফর থেকেই। যার ফলে তার পরিবর্তে দলে নেয়া হবে প্রস্তুতি ম্যাচে অসাধারণ বোলিং করা মোহাম্মদ সিরাজকে।

ভারতীয় দলের প্রধান নির্বাচক এমএসকে প্রাসাদ বলেন, ‘দেখুন, আমাদের কমিটির কাছে এখন বিষয়টা পুরোপুরি ক্লিয়ার যে অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের মত কন্ডিশনে আমাদের স্পেশাল উইকেটরক্ষক হচ্ছেন রিশাভ পান্ত। কারণ, সেখানে ব্যাটিংও প্রয়োজন আছে। কিন্তু শুধু যদি ভারতের মাটিতে ধরেন, তাহলে ৬ জনের পর ব্যাটিংটা দরকার হয় না। তখন আমরা একজন বিশেষজ্ঞ উইকেটকিপার রাখি। যেটা অস্ট্রেলিয়ায় প্রযোজ্য নয়।’

অন্যদিকে, দলের মধ্যে ব্যাটিং অর্ডারেও পরিবর্তন আনা হতে পারে। কারণ বিরাট কোহলির অনুপস্থিতি। যে কারণে টিম ম্যানেজমেন্ট চিন্তা করছে হনুমা বিহারীকে ব্যাটিং অর্ডারে আরও এক কিংবা দুই ধাপ এগিয়ে আনা যায় কি না। বিহারি এখন ব্যাটিং করেন ৬ নম্বরে।

এমএসকে প্রাসাদ মনে করেন, তিনি পাঁচ কিংবা চারেও ব্যাটিং করতে পারেন। লোকেশ রাহুলের সঙ্গে দারুণ একটি জুটিও গড়ার অবকাশ থাকবে তার কাছে।

আহাস/ক্রী/০০৭