Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ফেরার পক্ষে কতটা প্রস্তুত মাহমুদউল্লাহ?

ক্রীড়লোক প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ দলের সাবেক টেস্ট অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে লড়তে হচ্ছে ক্রিকেটের আভিজাত ফরম্যাট টেস্ট দলে জায়গা করতে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের আগে এই ফরম্যাটের হয়ে আপাতত ব্যাট তুলে রাখার কথা বলেছিলেন বাংলাদেশ দলের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।


বিগত কয়েক টেস্টেই খুব একটা ভাল করতে পারছিলো না দলের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ। বড় কোন রানই পাচ্ছিলেন না তিনি। আর এর পরে পাকিস্তানের বিপক্ষে নাসিম শাহর হ্যাটট্রিক বলে আউট হওয়ার পর টেস্ট ক্রিকেটে তার খেলা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। তাই তো জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠে একমাত্র টেস্টের দলে জায়গা হয়নি তার। তবে সম্প্রতি লংকানদের বিপক্ষে সফরের প্রাথমিক স্কোয়াড বিসিবির নির্বাচকরা তাকে রেখেছিলো।

সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বদলি হিসাবে টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন রিয়াদ। তার অধীনে বাংলাদেশের জয়ও আছে একটি। অধিনায়কত্ব করার ম্যাচগুলোতে তার ব্যাট থেকে টানা শতকের দেখাও মিলেছিলো। কিন্তু প্রায় ১১ বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারে ধারাবাহিক হতে পারেননি রিয়াদ। প্রথম শতক করার প্রায় ৮ বছর পরে দেখা পান দ্বিতীয় শতকের। অবশ্য পরের দুইটি শতক আবার দুই সিরিজের মাঝেও হাঁকান। কিন্তু তারপরেই আবার ছন্দপতন।


আর এদিকে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় দুই দিনের ম্যাচে দুর্দান্ত ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৫৬ রানে আউট হন বাজে শটে। সাইফ উদ্দিনের স্টাম্প সোজা বল ফ্লিক করতে গিয়ে ফিরতি ক্যাচ দেন মাহমুদউল্লাহ। দুর্দান্ত ছিলেন প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচেও। তবে একাদশে ফিরতে কতটুকু নিজেকে প্রস্তুত করেছেন রিয়াদ?

টেস্ট দল থেকে বাদ পড়ার পর মাহমুদউল্লাহ যেভাবে উন্নতির চেষ্টা করে যাচ্ছেন, তাতে মুগ্ধ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তিনি বলেছিলেন, ‘তাকে (রিয়াদ) সবশেষ টেস্ট দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল এবং টেস্ট দলে ফেরার লড়াইয়ের চেষ্টা করার সিদ্ধান্ত তারই। আমি যা দেখেছি, মহামারীর এই সময়ে সে কঠোর পরিশ্রম করেছে, ৫-৬ কেজি ওজন ঝরিয়েছে। খুব ভালো ট্রেনিং করছে, খুব ভালো ব্যাটিং করছে।’

বাংলাদেশ কোচ মনে করেন রিয়াদের প্রচেষ্টা যথেষ্ট নয়। টেস্ট দলে ফিরতে মাহমুদউল্লাহকে করতে হবে আরও অনেক কিছু। তিনি বলেন, ‘সে যেভাবে কাজ করছে, সেটির প্রতি আমার সম্মান আছে দারুণ। দলে ফিরতে আরও কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, যা সে করছে। দলে ফিরতে তাকে দারুণ কিছু পারফরম্যান্সও দেখাতে হবে। কোনো ক্রিকেটারকে কখনোই বাতিলের খাতায় ফেলে দেওয়া যায় না।’

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালে বাংলাদেশের পক্ষে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে অভিষেক হয় রিয়াদের। এরপর খেলে ফেলেছেন ৪৯টি টেস্ট। ৯৩ ইনিংসে তার সংগ্রহ ২৭৬৪ রান, ব্যাটিং গড় ৩১.৭৭। শতক হাঁকিয়েছেন ৪টি ও অর্ধশতক ১৬টি। এছাড়া বল হাতে শিকার করেছেন ৪৩টি উইকেট।

নিহে/ক্রী/০০১