Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

পাকিস্তান যাচ্ছে ‘বড়’ চার দল!

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদক:

করোনা সংকটকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ক্রিকেট প্রথম ফিরেছে ইংল্যান্ডে। এর মাঝে দেশটিতে সফর করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজে হয়েছে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির আসর ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট লিগ। এখন দুবাইয়ে চলছে আইপিএল। অস্ট্রেলিয়া সফর করছে নিউজিল্যান্ডের মেয়েদের দল। ইংল্যান্ডে খেলছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মেয়েরা। তবে প্রায় পাঁচ মাসের করোনায় ঘরবন্দী হয়ে থাকায় অনেক ক্ষতি মেনে নিতে হয়েছে ক্রিকেটকে। বাংলাদেশ খেলতে পারেনি আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়ন শীপের লংকানদের বিপক্ষে ম্যাচ, ভারত তাদের সফর বাতিল করেছে। টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপ আপাতত স্থগিত আছে। সে হিসেবে পাকিস্তান ক্রিকেটে আসলে কতটুকু আঘাত হানতে পেরেছে করোনা সংকট? বা সে ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কার্যত কি পদক্ষেপ নিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড?

করোনা মহামারীর মধ্যে পাকিস্তানের ৬ ওয়ানডে এবং ৮টি টি-২০ ম্যাচ বাধাগ্রস্থ হয়েছে। বাতিল হয়েছে ২০২০ সালে আইসিসি’র এফটিপিতে থাকা সূচীর মধ্যে মাত্র ১টি টেস্ট। তবে পাকিস্তানকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর যে মহাপরিকল্পনা চলছে। আর তার অংশ হিসেবে আগামী বছর দুয়েকের মধ্যেই নাকি বড় চারটি দল যাবে পাকিস্তান সফরে! তবে বড় চার দল গুলো আসলে কারা?
‘ভারত আপাতত বাদ থাকুক, আমরা অন্যদিকে দেখি!’—পাকিস্তানের চিন্তাভাবনা এখন এমনই। ভারতের সঙ্গে রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্কের অনেক বেশি খারাপ অবস্থা। সেক্ষেত্রে দুই দলের ক্রিকেট সিরিজের সম্ভাবনা দেখছে না পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ওয়াসিম খান তাই ভারত-পাকিস্তান সিরিজের ভাবনা আপাতত বাদ দিয়েছেন।

পাকিস্তান চলতি বছরের শুরুতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের ১টি খেলেছে। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্যটি আছে মজুদ। এদিকে আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে ২ ম্যাচের টেস্ট এবং ৩ ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ড যাবে পাকিস্তান। সফরসূচীও চূড়ান্ত হয়েছে। আগামী ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৭ জানুয়ারির মাঝের এই সফরে পাকিস্তান ৫টি ম্যাচ খেলবে ৫টি ভেন্যুতে। এদিকে ঘরোয়া পর্যায়ে টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে পাকিস্তান। সেখানে ধারাবাহিক সাফল্য পাচ্ছে পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা। শাহীন শাহ আফ্রিদির দুর্দান্ত ব্যাটিং বা বাবর আজমের ব্যাটে রানের ফোয়ারা আসলে জানান দিচ্ছে তাদের অবস্থান। করোনা কালীন সংকট কাটিয়ে মাঠে ফিরতে প্রস্তুতই বলা চলে পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের। তবে সূচি অনুযায়ী বড় দলগুলোর সাথে খেলা হলে কি আবারও নিরপেক্ষ ভেন্যু বেছে নিবে পাকিস্তান নাকি ঘরের মাঠে আযোজন করবে সিরিজগুলোর?

এমন প্রশ্নের কার্যত উত্তর দিয়েছেন পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের ক্রিকেটের অনুসারীদের প্রতি আমার বার্তা থাকবে এটাই যে, আমরা অনেকটা এগিয়ে গেছি (পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরানোর পথে)। এখনো অনেক কাজ বাকি। কিন্তু ভারতের সঙ্গে খেলার ভাবনা বাদ দিয়েও পাকিস্তানের ক্রিকেটের সামনে অনেক কিছু আছে।’

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা দলের বাসে সন্ত্রাসী হামলার ধকল অবশেষে আস্তে আস্তে কাটিয়ে উঠছে পাকিস্তান। বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ের মতো দল পাকিস্তানে গিয়ে সিরিজ খেলে এসেছে। অনুষ্ঠিত হয়েছে কুমার সাঙ্গাকারার নেতৃত্বে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি) পাকিস্তান সফর। কিন্তু এখনো ক্রিকেটের স্বীকৃত বড় দলগুলোর কেউ পাকিস্তানে যায়নি। এর মধ্যে ভারত গেলে পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরানোর প্রক্রিয়া যে চূড়ান্ত সাফল্য পেয়েছে ধরে নেওয়া যাবে, সে নিয়ে সংশয় সামান্যই। তবে খুব দ্রুতই ফিরছে পাকিস্তানে বড় দলগুলো!

নিহে/ক্রী/০০২