Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

থ্রিলার ম্যাচ জিতে টিকে থাকলো পাঞ্জাব

ক্রীড়ালোক ডেস্ক:

প্লে অফে ওঠার জন্য দলগুলোর মধ্যে ইতিমধ্যেই ইদুর দৌড় শুরু হয়ে গেছে। শনিবারের থ্রিলার ম্যাচে দুর্দান্ত জয় তুলে নিজেদের অনেকটা এগিয়ে রেখেছেন কোলকাতা নাইট রাইডার্স। অল্প পুঁজিতেও ক্রিস জর্ডান এবং অর্শদীপ সিং’য়ের দুরন্ত ডেথ বোলিংয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১২ রানে হারিয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

শনিবার আইপিএলে ডাবল হেডারের দ্বিতীয় ম্যাচে দুবাইয়ে লো-স্কোরিং ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে স্কোরবোর্ডে মাত্র ১২৬ রান তোলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। হায়দরাবাদ বোলারদের আটোসাঁটো বোলিংয়ে এদিন দুবাইয়ে প্রথমে ব্যাট করে ৭ উইকেট এই রান তুলে রাহুলরা। ২৭ রান করেন অধিনায়ক কেএল রাহুল। সর্বোচ্চ ৩২ রান করে অপরাজিত থাকেন নিকোলাস পুরান। ২০ বলে ২০ রান আসে ক্রিস গেইলের ব্যাট থেকে।

হায়দরাবাদের হয়ে আবারও দুর্দান্ত ছিলেন আফগান লেগ-স্পিনার রশিদ খান। ৪ ওভারে ১৪ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন তিনি। এছাড়া ২ টি করে উইকেন পান সন্দীপ শর্মা এবং জেসন হোল্ডার।

বোলারদের বেঁধে দেওয়া সহজ লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে শুরুটা দারুণ করেন হায়দরাবাদের দুই ওপেনার। অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ২০ বলে ঝোড়ো ৩৫ রানের ইনিংস খেলে আউট হন। তখন হায়দরাবাদের রান ৬.২ ওভারে ৫৬। তবে এর পরেই খেই হারায় রাইজার্সরা। দ্রুত জনি বেয়ারস্টো এবং আব্দুল সামাদকে ফিরিয়ে কিছুটা ম্যাচে ফেরে পাঞ্জাব।

কিন্তু চতুর্থ উইকেটে মনীশ পান্ডে এবং বিজয় শংকরের ৩৩ রানের পার্টনারশিপ কাজ অনেকটাই সহজ করে দেয় হায়দরাবাদ। শেষে ৪ ওভারে হায়দরাবাদের প্রয়োজন ২৭ রান, হাতে ৬টি মূল্যবান উইকেট। এমন অবস্থায় ম্যাচ ঘোরানোর দায়িত্ব নেন পাঞ্জাবের দুই পেসার ক্রিস জর্ডান এবং অর্শদীপ সিং। ১৬ ওভারে ৩ উইকেটে ১০০ থেকে ১৯.৫ ওভারে ১১৪ রানে অল-আউট হয়ে যায় সানরাইজার্স।

আরেকটি রান আউট। অসম্ভবকে সম্ভব করে স্ট্যান্ডে বসে থাকা মালকিন প্রীতি জিন্টার মুখে হাসি ফোটান এই দুই পেসার। একইসঙ্গে

টানা চার ম্যাচ জিতে প্লে-অফের ইঁদুর দৌড়ে দলকে লড়াইয়ে রাখেন জর্ডন এবং অর্শদীপ। চার ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা ক্রিস জর্ডন। পাঞ্জাবের অতি বড় সমর্থকও এই রানে জয়ের আশা করেননি।

নিহে/ক্রী/০০২