Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

কে হচ্ছেন পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রধান নির্বাচক?

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদক:

‘মিসবাহ প্রধান নির্বাচকের দায়িত্বে আর থাকছেন না।’ -এমন গুঞ্জন অনেক আগে থেকেই শোনা যাচ্ছিল। আর সেটি নিশ্চিত হলো গতকাল। প্রায় বছর খানিক পরে পাকিস্তান সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ উল হকের বোধদয় হলো, না দুই দায়িত্ব সামলে উঠতে পারছি না!

পাকিস্তানের সাবেক কোচ মিকি আর্থার ও ইনজামাম-উল হকের বিদায়ের পর ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে পাকিস্তানের প্রধান কোচ ও প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব পান মিসবাহ উল হক। তবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডও তার দায়িত্বে অনেকটা খুশি ছিলো। কিন্তু একসঙ্গে প্রধান কোচ আর প্রধান নির্বাচনের দায়িত্ব পাওয়ার পরও জাতীয় দলকে প্রত্যাশিত ফল এনে দিতে পারেননি মিসবাহ। তার অধীনে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির ২৭ ম্যাচে অংশ নিয়ে মাত্র ৯টি জয় পায় পাকিস্তান।

আর সেই কারণে তাকে নিয়ে ঘরে -বাইরে সমালোচনা শুরু হয়। সমালোচনা করেন অনেক সাবেক পাকিস্তানি খেলোয়াড়ও। সেই সমালোচনা এড়াতেই এক বছর পর প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব থেকে স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ালেন পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়ক।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে থাকছেন মিসবাহ উল হক। ছবি: সংগৃহীত

তবে তার বদলে কে আসবেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচকের ভুমিকায়? প্রশ্নের উত্তর এখনো অনিশ্চিত। তবে গেল জুনে সংবাদ সংস্থা পিটিআই কারও নাম প্রকাশ না করলেও জানিয়েছিল, প্রধান নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব নিতে পারেন পাকিস্তানের সাবেক এক তারকা পেসার। সেই তারকা পেস বোলার কে? গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, নামটা হচ্ছে শোয়েব আখতার।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচকের ভূমিকায় দেখা যেতে পারে গতিতারকা শোয়েব আখতারকে। এমন সম্ভাবনার কথা জানিয়েছিলেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস নিজেই। গেল মাসে ইউটিউব শো ‘ক্রিকেট বাজে’ গতিতারকা জানিয়েছিলেন, আমি পাকিস্তান ক্রিকেটে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে চাই। তবে এখন পর্যন্ত কোন কিছু চূড়ান্ত হয়নি। ক্রিকেট ছাড়ার পর থেকে খুব আরামের জীবন যাপন করছি। তবে দেশের জন্য এই আরামের জীবন আমি ছাড়তে চাই। সুযোগ পেলে আমি অবশ্যই যেকোনো দায়িত্ব নিতে পিছপা হবোনা।

নিহে/ক্রী/০০৪