Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

শেষ মুহূর্তে আইপিএলে নতুন নিষেধাজ্ঞা

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে জনপ্রিয় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ বা আইপিএল । আসরের প্রথম দিনেই মাঠে নামছে ২০১৯ সালের দুই ফাইনালিস্ট মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আর চেন্নাই সুপার কিংস ।

ত্রয়োদশ আইপিএল শুরু হবার কথা ছিল ২৯ মার্চ । কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে সেই আসর ছয় মাস পিছিয়ে অবশেষে শুরু হচ্ছে । যদিও এবারের আইপিএলে আসছে অনেক পরিবর্তন । প্রথমত , এই প্রথম পুরো আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে ভারতের বাইরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে । সেই সাথে আইপিএলের খেলায় থাকবে না কোন দর্শক , চিয়ার গার্ল । থাকছে না হোম এন্ড এওয়ে ম্যাচ । এমনকি রাজনৈতিক ঝামেলায় সরে গেছে চায়নার স্পন্সর ‘ভিভো’ ।

এমনকি শেষ মুহূর্তে আইপিএলের খেলার সময় সংবাদ-মাধ্যমের উপস্থিতি নিষিদ্ধ করেছে আয়োজকরা । পরিস্থিতির কারণে প্রেস বক্সে সংবাদকর্মীদের উপস্থিতির অনুমতি দেয়নি আইপিএল আয়োজকরা।

কোনো মিডিয়া উপস্থিতি না থাকায়, আইপিএলের ইতিহাসে এবারই প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক কোনো প্রি-ম্যাচ কনফারেন্স থাকবে না। তবে প্রতি ম্যাচের পর বাধ্যতামূলকভাবে পোস্ট ম্যাচ কনফারেন্স হবে এবং সেটি পরিচালনা করা হবে অনলাইনের মাধ্যমে।

শুক্রবার এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতির মাধ্যমে এ বিষয়ে জানিয়েছে বিসিসিআই। তারা সেখানে লিখেছে, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে এবার আরব আমিরাতে রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হচ্ছে আইপিএল। স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে এবারের আসরে সংবাদকর্মীদের স্টেডিয়ামে প্রবেশ করে ম্যাচ কভারের সুযোগ রাখা হচ্ছে না। কোনো দলের প্র্যাকটিস সেশনের ক্ষেত্রেও এ নির্দেশনা বহাল থাকবে।’

শুধু আরব আমিরাতভিত্তিক সংবাদ মাধ্যমব্যতীত আর কাউকে এবার মিডিয়া রেজিস্ট্রেশনও করানো হবে না। যার ফলে যেকোনো ধরনের অফিসিয়াল আপডেটের জন্য শুধুমাত্র দুবাইয়ের ইংরেজি দৈনিক গালফ নিউজই রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

তবে অন্যান্য সংবাদ মাধ্যম যে খবর পাওয়া থেকে বঞ্চিত হবে, এমনটা নয়। বরং যেসব মিডিয়া হাউজ ইতোমধ্যে বিসিসিআইয়ের সঙ্গে রেজিস্টার্ড রয়েছে, তাদেরকে আয়োজকদের পক্ষ থেকে ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে অংশ নেয়ার ব্যবস্থা জানিয়ে দেয়া হবে। একইভাবে ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে প্রশ্নও করতে পারবেন সাংবাদিকরা।

এদিকে যেহেতু সংবাদ মাধ্যমের প্রবেশাধিকার থাকছে না, তাই খবরের কাজে ব্যবহারের জন্য বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকেই প্রতি ম্যাচের জন্য দেয়া হবে ৩৫টি করে ছবি। সেসব ছবি ব্যবহারের সময় বিসিসিআই বা আইপিএলের যথাযথ ক্রেডিট দিতে বলা হয়েছে।

আহাস/ক্রী/০০৭