Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

অবশেষে বার্সা ছাড়তেই হচ্ছে !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

অনেক নাটকের পর লিওনেল মেসির বার্সেলোনায় থাকা এখন পাকা । অন্তত আগামী একটি মৌসুম মেসিকে যে থাকতে হচ্ছে কাটালান ক্লাবেই , সেটাও এখন নিশ্চিত । ইতোমধ্যেই মেসি নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যানের অধীনে শুরু করেছেন অনুশীলন । তবে মেসি-কাণ্ডে বার্সেলোনা ছাড়তে হচ্ছে জোশেপ মারিয়া বার্তামিউকে । তাকে ছাড়তে হচ্ছে ক্লাবের সভাপতির পদ ।

যদিও প্রায় জোর করেই মেসিকে বার্সায় রেখে দেয়ার কৃতিত্ব অনেকটাই বার্তামিউর । কিন্তু তাতে কি ! মেসির সাথে বার্তামিউর খারাপ সম্পর্কের বিষয়টা ভালভাবে নেয় নি বার্সার সমর্থকরা । তবে তার চেয়ে বড় কারণ , সর্বশেষ মৌসুমে বার্সেলোনার ট্রফিহীন থাকা । যে কারণে বার্তামিউকে ব্যর্থ সভাপতি হিসেবেই গন্য করা হচ্ছে এখন ।

বার্সেলোনা ছাড়ার ইচ্ছে প্রকাশের সময়ে বার্তামিউর প্রশাসনের সমালোচনা করেছিলেন মেসি । বিশেষ করে মেসির ক্ষোভ ছিল বার্তামিউর উপরেই । তার উপর দলের সাম্প্রতিক বাজে পারফর্মেন্সে আস্থা হারিয়েছে বার্সেলোনার সমর্থকরা বার্তামিউর উপর । বার্সা আবার বিশ্বের অন্যতম ক্লাব , যাদের চালায় সমর্থকদের ভোট । ফলে আগামী নির্বাচনে বার্তামিউর ভরাডুবি অনেকটাই নিশ্চিত ।

ইতোমধ্যেই বার্তামিউর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে সক্রিয় হয়েছেন ক্লাব সদস্যদের একটি বড় অংশ। বার্সা সদস্যদের মধ্যে সই সংগ্রহ করে জনমত তৈরি করছেন তাঁরা। এই অভিযান সফল হলে আগামী বছর নির্বাচনের আগেই দায়িত্ব থেকে সরতে হতে পারে বার্সা প্রেসিডেন্টকে।

বার্তামিউর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনার জন্য সই সংগ্রহের এই উদ্যোগ নিয়েছেন ভিক্তর ফন্ত, জর্ডি ফেরে ও লুইস ফের্নান্দেস-আলার মতো ক্লাবের শীর্ষস্থানীয় কর্তারা। যাঁরা আগামী বছর নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন। সংবাদমাধ্যমকে তাঁরা জানিয়েছেন, বর্তমান সভাপতির বিরুদ্ধে ৭৫০০ জন সদস্যের সই সংগ্রহ করেছেন। ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ১৬,৫২০ জন সদস্যের সই সংগ্রহ করা গেলেই বার্সা প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনা যাবে।

যারা গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করছেন, তাদের লক্ষ্য ১৬ হাজার ৫২০টি অনাস্থা ভোটের স্বাক্ষর নেয়া। যেটা হবে বার্সার ইলেক্টোরাল রেজিস্টারের ১৫ ভাগ।

আগামী বছরের মার্চ কিংবা এপ্রিলে অনুষ্ঠিত হবে বার্সেলোনার নির্বাচন ।

আহাস /ক্রী/০০৯