Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

‘গোল্ডেন শ্যু’ এখন ইমোবিলের !

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

ইটালিয়ান সিরি ‘এ’ ফুটবলের শিরোপা লড়াইয়ে শুরু থেকে জুভেন্টাসের সাথে টক্কর দিচ্ছিলো ল্যাৎজিও । কিন্তু করোনা বিরতির পর ছন্দ হারিয়ে ল্যাৎজিও একের পর এক ম্যাচে হেরে বিসর্জন দিয়েছে শিরোপার স্বপ্ন । তাদের ব্যর্থতার সুযোগে টানা নবম লীগ শিরোপা নিজেদের করে নিয়েছে জুভেন্টাস ।

ইটালিয়ান লীগে ল্যাৎজিও ছন্দ হারালেও ফরোয়ার্ড কিরো ইমোবিলে ঠিকই নিজের কাজ করে গেছেন । লীগের মাত্র এক ম্যাচ বাকী থাকতে তিনি অনেকটাই নিশ্চিত করে নিয়েছেন ইটালিয়ান লীগের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার । সেই সাথে ইউরোপের সেরা গোলদাতা হওয়ার দৌড়েও অন্যদের পেছনে ফেলেছেন ইটালির তারকা ফরোয়ার্ড ।

বুধবার রাতে (২৯ জুলাই) রাজধানী রোমের প্রতিনিধি ল্যাৎজিও মুখোমুখি হয়েছিল ব্রেসিয়ার । অলিম্পিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি স্বাগতিক ল্যাৎজিও জিতেছে ২-০ গোলে ।

খেলার ১৭ মিনিটেই জ্যাকুইন কোরেরার গোলে এগিয়ে যায় ল্যাৎজিও । আর ৮২ মিনিটে দলের হয়ে কিরো ইমোবিলে করেন দ্বিতীয় গোলটি ।

এই নিয়ে লীগের ৩৭ ম্যাচে ইমোবিলের গোলের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৫টি । ৩১ গোল নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন জুভেন্টাসের মহাতারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো । টানা দুই ম্যাচে জালের দেখা না পাওয়া পর্তুগীজ রোনালদো এখন অনেকটাই পিছিয়ে গেছেন সেরা গোলদাতার লড়াই থেকে । ইমোবিলেকে হারাতে শেষ ম্যাচে রোনালদোর দরকার কমপক্ষে পাঁচ গোল । সেটাও আবার ইমোবিলে গোল না পেলে । চার গোল পেলে ইটালিয়ান ফরোয়ার্ডের সমান হবেন সিআর-সেভেন ।

এদিকে ইউরোপিয়ান ‘গোল্ডেন-শ্যু’ জয়ের দৌড়েও এখন সবচেয়ে এগিয়ে ইমোবিলে । তিনি পেছনে ফেলেছেন জার্মান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভেন্ডস্কিকে । লেভার গোলের সংখ্যা থেমেছে ৩৪টিতে ।

ইমোবিলের সামনে এখন ইটালিয়ান লীগের এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশী গোলের রেকর্ড গড়ার হাতছানি । আর এক গোল করলেই সিরি ‘এ’র ইতিহাসে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের গঞ্জালো হিগুয়াইনের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন লাৎসিও স্ট্রাইকার।

ইতোমধ্যে ৩৫ তম গোল করে ১৯৪৮-৪৯ মৌসুমে নর্দহালের ৩৫ গোলের রেকর্ড ছুঁয়েছেন ইমোবিলে। হিগুয়াইনের রেকর্ড স্পর্শ করতে বা ভাঙতে ইমমোবিলে হাতে পাচ্ছেন আর এক ম্যাচ। ২০১৫-১৬ তে ৩৬ গোল করে ইতালিয়ান লিগে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়েছিলেন হিগুইন। সেবার হিগুইনের ৩৬ গোলের মাত্র ৪টি এসেছিল পেনাল্টি থেকে, ইমোবিলে অবশ্য ৩৫ গোলের ১৪টি করেছেন পেনাল্টি থেকে।

লেভেন্ডস্কি হেরে যাওয়ায় ২০১৯-২০ মৌসুমে ইউরোপের সেরা গোলদাতার পুরস্কার ইটালিতে যাওয়ার বিষয়টা এখন নিশ্চিত । ২০০৬-০৭ মৌসুমে ফ্রাঞ্চেস্কো টট্টির পর প্রথম বারের মতো ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু যাচ্ছে ইতালিয়ান লিগের কোনো খেলোয়াড়ের কাছে। তাকে হারাবার ‘অলৌকিক’ সম্ভাবনা কেবল আছে রোনালদোর । সেটা হলেও ইউরোপিয়ান গোল্ডেন-শ্যু যাচ্ছে ইটালিতেই ।

২০০৬-০৭ মৌসুমে টট্টি ‘গোল্ডেন-শ্যু’ জেতার পর লা লীগার বাইরে এই ট্রফি গেছে মাত্র একবার। ২০০৭-০৮ মৌসুমে রোনালদোই সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে। এরপর থেকেই লা লীগার ক্লাবগুলো একচ্ছত্র আধিপত্য দেখিয়েছে। এক লিওনেল মেসিই সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন রেকর্ড ৬ বার। ২০১৩-১৪ মৌসুমে লিভারপুলের লুইস সুয়ারেজ যুগ্মভাবে এই পুরস্কার জিতেছিলেন রোনালদোর সঙ্গে।

৩০ বছর বয়সী ইমোবিলে ২০১৬-১৭ মৌসুম থেকে খেলছেন ল্যাৎজিওতে । এখন পর্যন্ত রোমের ক্লাবটির হয়ে সব মিলিয়ে ১৭৭ ম্যাচে তিনি করেছেন ১২৪গোল ।

ইটালিয়ান লীগে সেরা গোলদাতা হওয়া ইমোবিলের জন্য নতুন কিছু না । ২০১৩-১৪ মৌসুমে তুরিনোর হয়ে ২২ গোল করে তিনি জিতেছিলেন ইটালির সেরা গোলদাতার পুরস্কার । এছাড়া ২০১৭-১৮ মৌসুমে ২৯ গোল করে ইন্টারের মাউরো ইকার্দির সাথে যৌথ সেরা গোলদাতা ছিলেন তিনি । একই মৌসুমে উইয়েফা ইউরোপা লীগের যৌথ সেরা গোলদাতা ছিলেন তিনি ।

ক্লাব ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত ৩৭২ ম্যাচে ২০২ গোল করেছেন ইমোবিলে । জাতীয় দলের হয়ে ৩০ ম্যাচে ১০ গোল আছে তাঁর ।

আহাস/ক্রী/০০২