Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

মাহমুদুল্লাহ আউট , মুশফিক ইন

ক্রীড়ালোক প্রতিবেদকঃ

চলতি মাসেই মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ আর জিম্বাবুয়ের সিরিজ । আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি মিরপুরের শের-এ-বাংলা স্টেডিয়ামে একমাত্র টেস্টের মধ্য দিয়ে মাঠে গড়াবে এই সিরিজ । জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এই সিরিজে আরও তিনটি ওয়ানডে আর দুইটি টি-২০ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ ।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজকে সামনে রেখে রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দল ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ‘বিসিবি’ । শুরুতেই যেহেতু টেস্ট লড়াই , তাই টেস্ট স্কোয়াড ঘোষণা করা হবে আগে ।

টেস্টে বাংলাদেশের সময় একেবারেই ভাল যাচ্ছে না । সর্বশেষ ছয় টেস্টে বাংলাদেশ টানা হেরেছে । পাকিস্তানের বিপক্ষে চলতি সপ্তাহেই রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে টাইগাররা । ফলে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট স্কোয়াডে কিছুটা হলেও পরিবর্তন আসতে চলেছে , এটা নিশ্চিত । জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বিপক্ষে বাদ পড়ছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ , এটা এখন জোর খবর । এছাড়া দলের সঙ্গে যোগ হতে পারেন অন্তত দুজন স্পিনার। আভাস দিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। অধিনায়কত্ব নিয়ে অসন্তোষ থাকলেও, এ যাত্রায় বেঁচে যাচ্ছেন মুমিনুল হক। আপাতত ঢাকা টেস্টেও টস করতে নামবেন তিনি।

দলের টানা হারে ক্ষেপেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন । তিনি প্রয়োজনে দলের ক্রিকেটারদের কাছে জবাবদিহিতা চাওয়ার আভাস দিয়েছেন । ইতোমধ্যেই প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো এবং দুই নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন আর মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর সাথে করছেন জরুরী মিটিং ।

জানা গেছে , সেই সভাতেই মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে টেস্ট থেকে বিশ্রাম দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে । এছাড়া সিদ্ধান্ত হয়েছে , মুশফিকুর রহিমকে দলে ফেরাবার । বাংলাদেশের অন্যতম ভরসার ক্রিকেটার মুশফিক পাকিস্তানে যান নি নিরাপত্তার কারণে । বলা হয়েছিল , তাকে জিম্বাবুয়ে সিরিজেও রাখা হবে না । কিন্তু দলের খারাপ সময়ে সেই অবস্থান থেকে সরে আসছে বিসিবি । মুশফিককে শুধু জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজেই না , বরং পাকিস্তানে পরবর্তী ধাপের সফরেও মুশফিককে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে ।

যতদূর জানা গেছে , ঢাকা টেস্টেও ওপেনিংয়ে দেখা যাবে তামিম ইকবালকেই। ঘরোয়া লিগে ট্রিপল সেঞ্চুরি করলেও, পিণ্ডি টেস্টে বাজে ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী অব্যাহত রেখেছিলেন এ বাঁহাতি। তবে এখনই তাকে ছেটে ফেলা হচ্ছে না। সঙ্গী হিসেবে এ টেস্টেও পাবেন আনকোরা সাইফ হাসানকে।

আর ওয়ানডাউনে থাকছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ৪ নম্বরে অধিনায়ক মুমিনুল হক। দেশের বাইরে টেস্টগুলোতে তার অধিনায়কত্ব এবং ব্যাটিং বিরক্তি জাগালেও এ যাত্রায় বেঁচে যাচ্ছেন মুমিনুল। ৫ নম্বরে টিকে যাচ্ছেন মোহাম্মদ মিঠুন।

৬ নম্বর জায়গা থেকে অব্যাহত বাজে ফর্মের কারণে কাটা পড়তে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। জানা গেছে, দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট থেকে আপাতত বিশ্রামে যাওয়ার পরামর্শও দেয়া হয়েছে তাকে। তার বদলি হিসেবে দলে জায়গা পেতে পারেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম।

পরের জায়গাগুলোতে আপাতত খুব একটা পরিবর্তন আসেবনা বলেই ধারণা করা হচ্ছে। থেকে যাচ্ছেন লিটন, তাইজুল, এবাদত, রাহী, নাঈম হাসান, সৌম্য সবাই।

কেবল রুবেল হোসেনের পরিবর্তে আবারো দলে দেখা যেতে পারে মেহেদী মিরাজকে। আর দেশের মাটিতে খেলা হওয়ায় পেসার আল আমিনকে সরে গিয়ে জায়গা দিতে হতে পারে কোন একজন স্পিনারকে।

আসলে এখনও দল ঘোষণা না হওয়ায় কোন বিষয়েই নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না । আগামী রবিবার দল ঘোষণার পরেই সবকিছু পরিস্কার হবে ।

আহাস/ক্রী/০০৯